রবিবার , ৫ জুলাই ২০২০

বিদ্যুতের নামে লাখো কোটি টাকা নিয়ে ‘লোডশেডিং উপহার’

ক্রাইমবার্তা রিপোট:আওয়ামী লীগ সরকার বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়ানোর কথা বলে জনগণের পকেট থেকে লাখো কোটি টাকা বের করে নিয়ে জনগণকে লোডশেডিং উপহার দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।
মঙ্গলবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

ফাইল ছবি

তিনি বলেন, ভয়াবহ লোডশেডিংয়ে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা ও রাজশাহীর মতো বড় বড় শহর-নগরে দফায় দফায় ভয়াবহ লোডশেডিং হচ্ছে।

গ্রামাঞ্চল ও মফস্বল শহরে প্রায় ১০ থেকে ১২ ঘণ্টা লোডশেডিং হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন এ বিএনপি নেতা।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, কুইক রেন্টাল বিদ্যুৎ স্থাপন করে মূলত লুটপাটেরই সুযোগ দেয়া হয়েছে, আর কেটে নেয়া হয়েছে সাধারণ মানুষের পকেট।

রিজভী বলেন, অনুন্নয়নের শরীরে প্রসাধনী মাখালেই উন্নয়ন হয় না, সেটি হয় ধাপ্পাবাজি। আওয়ামী সরকার সেই কাজটি করছে।

তিনি বলেন, বিদ্যুৎ সংকটে সারা দেশের মানুষের যখন ত্রাহি দশা, তখন বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) ওয়েবসাইট দিচ্ছে সম্পূর্ণ ভিন্ন তথ্য।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব বলেন, পিডিবির ওয়েবসাইটে দেখা গেছে, সোমবার ও এর আগের কয়েকদিন দেশে চাহিদার চেয়ে বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদিত হয়েছে।

ওয়েবসাইটের বরাতে তিনি জানান, ২১ মে বিদ্যুতের চাহিদা ছিল ৮ হাজার ৮০০ মেগাওয়াট, উৎপাদন ছিল ৮ হাজার ৮৩০ মেগাওয়াট। ২০ মে চাহিদা ছিল ৮ হাজার ৭০০ মেগাওয়াট, উৎপাদন ছিল ৮ হাজার ৮১৯ মেগাওয়াট।

পিডিবির এই তথ্য ডাহা মিথ্যাচার দাবি করে রিজভী বলেন, সরকার জনগণকে ধোকা দিচ্ছে। আমরা সরকারের এহেন মিথ্যাচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করছি।

এদিকে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে পুলিশের তল্লাশির প্রতিবাদে বুধবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ ডেকেছে বিএনপি।

এ সমাবেশের অনুমতির ব্যাপারে রিজভী বলেন, আমরা আশা করছি, সরকার আমাদেরকে অনুমতি দেবেন। দেখি তারা (ডিএমপি-গৃহায়ন অধিদফতর) কী সিদ্ধান্ত দেয়।

সমাবেশ সফল করতে বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ শাখা সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব বলেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের গেটের সামনে থেকে প্রতিদিন নেতাকর্মীদের তুলে নিয়ে পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গ্রেফতার করছে ও মিথ্যা মামলা দিচ্ছে।

তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, কেন এই গ্রেফতার? কীসের ভয় আপনাদের? আমরা আর বেশি দিন চুপ করে বসে থাকব না কিন্তু।

এসময় বিএনপি নেতা সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, তাইফুল ইসলাম টিপু, সুলতানা আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

About ক্রাইমবার্তা ডটকম

Check Also

করোনা সামাল দিতে ব্যর্থতার জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেককে পদত্যাহের দাবী

ক্রাইমর্বাতা রিপোট: ঢাকা:  দেশের স্বাস্থ্য খাতে দুরবস্থা এবং কোভিড-১৯ পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যর্থতার জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *