জুন ৩০, ২০১৭
ক্ষমতাসীনরা জনগণের টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করছে : জামায়াত

ক্রাইমবার্তা রিপোট:ঢাকা : ক্ষমতাসীনরা জনগণের টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান।

আজ গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ক্ষমতাসীনরা জনগণের টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করছে : জামায়াত

একইসঙ্গে বাংলাদেশ থেকে অর্থ পাচার দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে বলে দাবি করে এঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ২০১৬ সালে সুইচ ব্যাংকের বিভিন্ন শাখায় বাংলাদেশিদের অবৈধ সঞ্চয়ের পরিমাণ এসে দাঁড়িয়েছে ৫,৬৮৫ কোটি টাকা। গত এক বছরে অবৈধ সঞ্চয়ের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে ১,১৫০ কোটি টাকা, বৃদ্ধির হার ঊনিশ শতাংশ। সুইচ ন্যাশনাল ব্যাংকের প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য পাওয়া যায়। উক্ত প্রতিবেদন থেকে আরও জানা যায় যে, সুইচ ব্যাংকে ভারতীয় নাগরিকদের আমানত কমলেও বাংলাদেশীদের অবৈধ সঞ্চয় প্রতি বছর বেড়েই চলেছে।

জামায়াত সেক্রেটারি বলেন, ‘অবৈধ পন্থায় জনগণের কোটি কোটি টাকা লুটপাট করে বর্তমান সরকারের প্রভাবশালী ব্যক্তিরা অর্থ পাচার করে সুইচ ব্যাংকসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ব্যাংকে অবৈধভাবে সঞ্চয় করা অর্থ রাখছে। তারা সরকারি ব্যাংকগুলোতে সীমাহীন লুটপাট করে কোটি কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছে। সরকারি দলের রাঘব-বোয়ালরাই যে এসব লুটপাটের সাথে জড়িত তা বলার অপেক্ষা রাখে না’।

তিনি ‘অবৈধ অর্থ পাচারের ব্যাপারে শ্বেতপত্র প্রকাশ করার জন্য সরকারের নিকট দাবি জানান, যাতে দেশের জনগণ জানতে পারে অর্থ লুটপাট এবং পাচারের সাথে কারা জড়িত। দেশের সাধারণ মানুষ যেখানে দু’বেলা খাবার যোগার করতে পারছে না, সেখানে সরকারি দলের নেতা-কর্মীরা উন্নয়নের ধূয়া তুলে জনগণের টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করছে’।

তিনি আরো বলেন, ‘শ্বেতপত্র তৈরি ও প্রকাশ করে দেশের জনগণের অর্থ ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। এ ব্যাপারে সোচ্চার হওয়ার জন্য তিনি দেশপ্রেমিক জনগণের প্রতি আহ্বান জানান’।

 

Facebook Comments
Please follow and like us:
একই রকম সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক ----- ------ মো: আবু শোয়েব এবেল ....... ...মোবাইল: ০১৭১৫-১৪৪৮৮৪ ------------------------- -

ইউনাইর্টেড প্রির্ন্টাস,হোল্ডিং নং-০, দোকান নং-০, শহীদ নাজমুল সরণী,সাতক্ষীরা অফিস যোগাযোগ ০১৭১২৩৩৩২৯৯ e-mail: crimebarta@gmail.com