জুলাই ৪, ২০১৭
লক্ষ্মীপুরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন প্রশাসনের ছত্রছায়ায়, অভিযোগ এলাকাবাসীর

ক্রাইমবার্তা রিপোট:আলমগীর হোসেন লক্ষ্মীপুর থেকে: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা চররমোনী মোহন এলাকা ,বিভিন্ন জায়গা অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের মহো -উৎসব চলে আসছে দীর্ঘ দিন যাবত। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা প্রশাসনের তেমন কোনো তৎপরতা না থাকায় এলাকাবাসী প্রশাসনের কর্তা ব্যাক্তিদের দিকে আঙ্গুল তুলেছেন। 10
তাদের দাবী প্রশাসনের কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে বালু খেকোরা একের পর এক অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করেন।
জানা গেছে উপজেলার দক্ষিণ পিয়ারাপুর জলা, ভবানীগঞ্জ, মোল্লার হাট খাস পুকুর পাড়, চরগাছিয়া, দক্ষিণ হামছাদী, উত্তর হামছাদী, বিভিন্ন জায়গায় থেকে অবৈধভাবে শ্যালো মেশিনের সাহায্যে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এছাড়া ৭ নং বামনী ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড মনগাজী চৌকিদার বাড়ির পুকুর থেকে সেলিম ভূঁইয়া নেতৃত্বে বালু উত্তোলন চলছে।
আর এসব জায়গা থেকে মেশিনের সাহায্যে বালু উত্তোলন করা হলেও উপজেলা প্রশসনের পক্ষ থেকে তেমন কোনো তৎপরতা চোখে পড়েনি। স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ইউএনওকে ফোনে অবৈধ বালু উত্তোলনের বিষয়টি অবগত করার পর একটি নড়েচড়ে বসেন এ কর্মকর্তা ।
পরের দিন থেকে আবারও অবৈধভাবে এসব স্পট থেকে বালু উত্তোলনের কাযক্রম চলতে থাকে। এদিকে গত সোমবার চররমোনী মোহন ইউনিয়নের ২ নংওয়ার্ড ইয়াকুব সরকার মেম্বারের বড় ভাই ও[ প্রভাব বিস্তার কারী মো: ইয়াসীন তার নেতৃত্বে হরদম অবৈধভাবে বালু উত্তোলন চলছে।গণমাধ্যম কর্মীরা ইয়াসীন কে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের বিষয়ে, সরকার কতৃর্ক নিষেধ অবগত করলে তিনি বলেন, আমি বালু উত্তোলন করবো ! যদি কারো শক্তি থাকে বাধা দিয়ে বালু উত্তোলন বন্ধ করুক !! আমি দেখবো। দেখতে চাই ?
অপর দিকে ৩ নং ওয়ার্ড পিরোজ ম্বোরের নেতৃত্বে প্রায় ৩ লক্ষ টাকা বালু উত্তোলন করা হয়। এতে করে পুরো মহল্লার বাড়ি ঘর নিম্ম চাপে ঢাবিত হচ্ছে ? যেন দেখার কেউ নেই। এদিকে গত রবিবার ৩ জুলাই বেলা ২ ঘটিকার দিকে ৫ নং ওয়ার্ড করাতির হাট মেইন সড়কে সংলগ্ন এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, গত ৫ দিন যাবত আনোয়ারের নেতৃত্বে ফসলি জমি থেকে অবৈধভাবে শ্যালো মেশিনের সাহায্যে বালু উত্তোলন করছেন। চররমোনী মোহন এলাকা সচেতন মহলের কয়েক জন জানান, প্রশাসনের কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে এসব বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এ দিকে মোল্লার হাট হাজ¦ীমারা ডাকাতিয়া নদী থেকে হরদম বালু উত্তোলন করে চলছে প্রভাবশালী রকি। এ সকল বালু শহরের বিভিন্ন জায়গায় বিক্রয় হচ্ছে। রকি বলেন, ডাকাতিয়া নদী আমি ইজারা নিয়েছি, বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসী উপজেলা প্রশাসনকে জানালেও কোন কার্যকরী পদক্ষেপ না নেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা।
লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুজ্জামান বলেন শ্যালো মেশিনের সাহায্যে কোনো জায়গা থেকে বালু উত্তোলন করা অবৈধ। বিভিন্ন জায়গা থেকে বালু উত্তোলন করা অবৈধভাবে বালু উত্তোলন চলছে, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিনের সাহায্যে বালু উত্তোলন কারীদের বিরুদ্দে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বালু আইনে ৪ ধারা উল্লেখ আছে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে যারা বালু উত্তোলন করবে তাদের ২ বছর কারাদ-, সর্ব নিম্ম পঞ্চাশ হাজার টাকা হইতে দশ লক্ষ টাকা পযর্ন্ত্র অর্থ দ- বা উভয় দ-ে দ-িত হইবে।

Facebook Comments
Please follow and like us:
একই রকম সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক ----- ------ মো: আবু শোয়েব এবেল ....... ...মোবাইল: ০১৭১৫-১৪৪৮৮৪ ------------------------- -

ইউনাইর্টেড প্রির্ন্টাস,হোল্ডিং নং-০, দোকান নং-০, শহীদ নাজমুল সরণী,সাতক্ষীরা অফিস যোগাযোগ ০১৭১২৩৩৩২৯৯ e-mail: crimebarta@gmail.com