সোমবার , ১০ আগস্ট ২০২০

সারাদেশে ভয়-আতঙ্ক বিরাজ করছে: দুদু

ক্রাইমবার্তা রির্পোটঃ
সারাদেশে ভয়-আতঙ্ক বিরাজ করছে: দুদুর্ঢাকা: সারাদেশে ভয় ও আতঙ্ক বিরাজ করছে মন্তব্য করে নির্বাচনের পরিবেশ নেই বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীতে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, “আপনারা যখন খুশি যাকে খুশি অপহরণ করছেন, অন্যের ঘাড়ে দায় চাপাচ্ছে। আপনারা যখন খুশি গ্রেপ্তার করছে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের, বুদ্ধিজীবীদেরকে।

“ঢাকা শুধু নয়, সারাদেশে ভয় ও আতঙ্ক বিরাজ করছে। ভয় ও আতঙ্কের মধ্যে নির্বাচন করা যায় না।”

দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ সব নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাকে ‘মিথ্যা’ দাবি করে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য এসব মামলা প্রত্যাহারের শর্ত দেন এই বিএনপি নেতা।

“আমরা স্পষ্টভাষায় বলতে চাই, আমরা নির্বাচনে যেতে চাই। নির্বাচনের জন্য প্রথম শর্ত- সকল রাজবন্দিকে মুক্তি দিতে হবে। বেগম খালেদা জিয়াসহ সকলের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। একটি ভয় ও আতঙ্কমুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। তাহলে সুষ্ঠু, স্বাভাবিক, গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্ভব।”

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য জয়নুল আবদিন ফারুকসহ বন্দি নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন আয়োজন করে জাতীয় গণতান্ত্রিক আন্দোলন।

এতে বিএনপি নেতা দুদু বলেন, “আমরা নির্বাচনে যেতে চাই। তবে সেই নির্বাচন হতে হবে সহায়ক সরকারের অধীনে। শেখ হাসিনা যদি মনে করেন তিনি যা খুশি তাই করবেন, এটি সম্ভব হবে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি মতো- তা ভাবা ঠিক হবে না।

“জয়নুল আবদিন ফারুক জেলে, আবদুস সালাম পিন্টু জেলে, বিএনপি ও ২০ দলের নেতৃবৃন্দ এখন জেলে; আর আপনারা নৌকা মাথায় করে সারাদেশ ঘুরে বেড়াবেন, ভোট চাইবেন। আর আমরা কোর্টের বারান্দায় বসে থাকব হাজিরার নামে, বিচারের নামে- এটা পক্ষপাতমূলক নির্বাচন হবে না, এটা অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে না, এটা প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচন হবে না।”

তিনি আর বলেন, “আমরা এমন একটা নির্বাচন চাই, একাত্তর সালের যুদ্ধে আমরা যে গণতন্ত্র অর্জন করেছিলাম, স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম- আমার ভোট আমি দেব, যাকে খুশি তাকে দেব।”

নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টির জন্য প্রধানমন্ত্রীকে উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, “আমি বলব, সময় বেশি নাই, আলোচনার টেবিলে আসুন, উদ্যোগ নিন। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ অন্যান্য বিরোধী দলের সঙ্গে বসুন।

“যদি আলোচনায় বসতে ব্যর্থ হন, বিএনপি দায়িত্ব নেবে না। যে ঝড় উঠবে, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি মতো সেই আন্দোলন না, এই ঝড়ে সব কিছু তচনচ হয়ে যাবে, এই ঝড়ে সত্য প্রতিষ্ঠিত হবে, এই ঝড়ে দেশের মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে।”

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, “ব্যাংকের টাকা নির্বিবাদে চুরি করছেন। সর্বত্র লুটপাট, লুন্ঠন অর্থনীতি চালু হয়েছে।”

এম জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে মানববন্ধনের বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, তথ্য ও গবেষণা বিষয়কসহ সম্পাদক কাদের গনি চৌধুরী, নির্বাহী সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, মহানগর নেতা আবদুল হান্নানসহ অন্য নেতারা বক্তব্য রাখেন।

About ক্রাইমবার্তা ডটকম

Check Also

করোনাভাইরাস আমাদের অনেকটা পিছিয়ে দিচ্ছে

ক্রাইমবার্তাি রিপোট: করোনা সংকটকালীন দেশে খাদ্যের যেন ঘাটতি না হয় সেজন্য সরকার প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *