জুলাই ১৫, ২০১৭
নববধূর মত ঘোমটা পরেই সংবাদ পাঠ!

ক্রাইমবার্তা আন্তর্জাতিক ডেস্ক :টিভির পর্দায় এমন দৃশ্য সত্যিই অভূতপূর্ব। সংবাদ পাঠিকা মহিলা নববধূর মত মুখ ঢেকে রেখেছেন ঘোমটায়! কিন্তু কেন? এসটিভি হরিয়ানা নিউজ চ্যানেলে দেখা গেল এক অদ্ভুত দৃশ্য।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে, প্রতিমা দত্ত নামের ওই সংবাদ পাঠিকা আচমকাই পর্দায় আবির্ভূত হয়েছিলেন ঘোমটায় মুখ ঢেকে। এমন আচরণের রহস্যভেদও করেন তিনি নিজেই। জানিয়ে দেন, হরিয়ানা সরকারের মহিলাদের মুখ ঢেকে রাখার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতেই তিনি ঘোমটায় মুখ আবৃত করেছেন।

সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে মুখ খুলে প্রতিমা জানিয়েছেন, রাজ্য সরকার সবাইকে ঘোমটা পরতে বাধ্য করতে চাচ্ছে। রাজ্য সরকারের জার্নালে ঘোমটাকে বর্ণনা করা হয়েছে রাজ্যের পরিচয় হিসেবে।

তার মতে, একদিকে বিজেপি ‘বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও’ অভিযান চালাচ্ছে, অথচ তারাই রাজ্যের নারীর মুখ ঢেকে দিতে চায় ঘোমটায়! এহেন আচরণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতেই ঘোমটা পরে সংবাদ পাঠ করতে এসেছিলেন তিনি।

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়া দ্রুত ভাইরাল হয়ে গেছে। তিনি বলেন, ঘোমটা পরে কিছুই দেখা যাচ্ছে না। এটা বাধ্যবাধকতার মতোই। এটা ঘোমটা নয়, একটা শৃঙ্খল।

প্রতিমা এও বলেছেন, ওই বিজ্ঞাপন দেখে তিনি হতবাক হয়ে গিয়েছেন। খোদ সরকারই যদি চায় যে, মেয়ের ঘোমটা পরে থাকে তাহলে ‘বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও’ অভিযানের উদ্দেশ্যটা কী!

রাজ্য সরকারের ‘কৃষি সংবাদ’ ম্যাগাজিনে প্রকাশিত বিজ্ঞাপনে বলা হয় ‘ঘোমটা পরা মহিলারা হরিয়ানার স্বকীয়তা, গর্ব’।

উল্লেখ্য, হরিয়ানার বিরোধী দল থেকে শুরু করে কমনওয়েল্থে সোনা জয়ী তারকা কুস্তিগীর গীতা ফোগতও বিজ্ঞাপনটির সমালোচনা করেছেন।

 

Facebook Comments
Please follow and like us:
একই রকম সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক ----- ------ মো: আবু শোয়েব এবেল ....... ...মোবাইল: ০১৭১৫-১৪৪৮৮৪ ------------------------- -

ইউনাইর্টেড প্রির্ন্টাস,হোল্ডিং নং-০, দোকান নং-০, শহীদ নাজমুল সরণী,সাতক্ষীরা অফিস যোগাযোগ ০১৭১২৩৩৩২৯৯ e-mail: crimebarta@gmail.com