জেলায় স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা জাতীয়করনের দাবীতে মানবন্ধন ও স্বারকলিপি প্রদান।

ফিরোজ হোসেন ঃ সারাদেশের ন্যায় বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা শিক্ষক সমিতি সাতক্ষীরা জেলা শাখার উদ্যোগে বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা জাতীয়করণের দাবীতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষা মন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছেন।DSC00913 copy
মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানবন্ধনে সমিতির সভাপতি মোঃ আব্দুল হাকিম এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ, মাও সাইফুদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক মাও আশরাফুল ইসলাম, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নুরুল ইসলাম, কোষাধক্ষ মাওঃ আঃ খালেক, দপ্তর সম্পাদক আলাউদ্দিন, প্রচার সম্পাদক আব্দুর রব, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক, আহমদ উল্লাহ, সদস্য আজিজুল হক, আজিজুল ইসলাম, সোলাইমান, শাহিদা, মর্জিনা, তাসমিনারাসহ জেলার সকল উপজেলার ইবতেদায়ী শিক্ষক ও শিক্ষিকা বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বক্তারা বলেন, ১৯৯৪ সালে একই পরিপত্রে রেজিষ্টার প্রাথমিক বিদ্যালয় ও স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার শিক্ষকরা মাসিক ৫শ টাকা হারে ভাতা পেয়ে আসছিল। অথচ ২০১৩ সালে রেজিঃ প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ করা হলেও স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষকদের ভাগ্যের কোন পরিবর্তন ঘটেনি। তাই স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসাকে জাতীয়করণের দাবীতে বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতি বঞ্চিত শিক্ষকদের নিয়ে তীব্র আন্দোলন করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় গত ১০/০২/২০১৬ইং জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা শিক্ষকদের জাতীয় স্কেলে বেতনের দাবী আদায়ের লক্ষ্যে শিক্ষক সমাবেশ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিলে দাবীসমূহ অগ্রায়ন করার জন্য স্মারক নং-১৭২ শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষা সচিব উভয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে নির্দেশ দেন। সেই আলোকে ৩১ মে ২০১৭ তারিখে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের উদ্বৃতি দিয়ে জাতীয় করণ হতে যাচ্ছে ইবতেদায়ী মাদ্রাসা এই আলোকে বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। কিন্তু বর্তমান বিভিন্ন পত্রিকার মাধ্যমে আমরা জানতে পারলাম স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা কে সরকার জাতীয়করনের চিন্তা ভাবনা থেকে সরে এসে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসাকে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগে নিয়ে আসার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। যা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতি কখনও মেনে নেবেনা। তাই সরকারকে এ ষড়যন্ত্র থেকে সরে এসে বঞ্চিত, , নিষ্পেষিত, অবহেলিত শিক্ষকদের সন্তানদের লেখা পড়ার, খাদ্য , বস্ত্র, ভাল ভাবে বেচে থাকার সু ব্যবস্থা করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। বক্তারা বলেন, শিক্ষকরা কয়েক যুগ ধরে বিনা বেতনে শিক্ষার আলো জালিয়ে আসছে। কিন্তু বিনিময় আমরা সন্তানদের মুখে দু বেলা দুমুঠো ভাত তুলে দিতে পারিনি । প্রাথমিক বিদ্যালয় ও স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসায় একই শিক্ষা ব্যবস্থ চালু থাকলেও বেতন বৈষম্যের আকাশ পাতাল। বেতন বৈষম্য দূরীকরণসহ অনতি বিলম্বে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসাকে জাতীয়করন করে
শিক্ষকদের ন্যায্যদাবী পূরনের জোরদাবী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে। এবং রেজি:কৃত কোড নম্বর প্রাপ্ত ৬৭৮৯টি স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসার মধ্যে ১৫১৯ টি অনুদানভুক্ত বাকি ৫২৭০ টি অনুদান হইতে বঞ্চিতসহ সকল রেজি: ধারী মাদ্রাসা জাতীয়করনের দাবী জানাচ্ছি। প্রাইমারির ন্যায় সকল ইবতেদায়ী মাদরাসা সমূহ স্থায়ী রেজিঃ ব্যবস্থা করা সহ ৭ দফা দাবী মেনে নিতে কতৃপক্ষের প্রতি আহবান জানানো হয়। নেজি: এসময় মানবন্ধন শেষে নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষা মন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন।

 

Facebook Comments
Please follow and like us: