চারিদিকে সরকারের বিদায় সুর শোনা যাচ্ছে: রিজভী

ঢাকা: চারিদিকে আওয়ামী লীগ সরকারের বিদায়ের সুর শোনা যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বিএনপি ইস্পাতকঠিন মনোবলে ঐক্যবদ্ধ। কাজেই চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র-নীল নকশা করে আর পার পাওয়া যাবে না। চারিদিকে আপনাদের বিদায়ের সুর ধ্বণিত হচ্ছে। পরিবর্তনের বাতাস বইছে সর্বত্র। এটি ঠেকানো যাবে না। জুলুম-নির্যাতন ও ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে কোনও স্বৈরাচার ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি, পারবে না।

নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

রিজভী বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সিনিয়র নেতৃবৃন্দের নামে বানোয়াট ও ভিত্তিহীন বিবৃতি একটি ওয়েবসাইটে প্রচার করা হয়েছে। দু’দিন আগেও তারেক রহমানকে উদ্দেশ্য করে ভাইস চেয়ারম্যান এম মুর্শেদ খানের নাম ব্যবহারের মাধ্যমে বানোয়াট, অসত্য, মনগড়া বক্তব্য একটি ওয়েবসাইটে প্রচার করা হয়েছে। যার সাথে মুর্শেদ খানের কোনো সম্পর্কই নেই।17

সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা করছে ক্ষমতাসীনরা। ১/১১এর সরকারওতো কত অপচেষ্টা করেছিল কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। আপনারাও পারবেন না।

রিজভী বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার লন্ডন সফর নিয়ে প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা কতই না প্রলাপ বকছেন। তিনি চিকিৎসার জন্য লন্ডন গেছেন। অথচ প্রথমে আওয়ামী লীগের নেতারা বললেন- বেগম খালেদা জিয়া মামলার ভয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়ে গেছেন। এখন তারা বলছেন- বেগম জিয়া ষড়যন্ত্র করতেই লন্ডন গেছেন। এরপর হয়তো তারা আবার আরেক নতুন তত্ত্ব দিবেন।

ক্ষমতাসীন জোটের মন্ত্রী ও নেতারা মুনাফা, নগদ লাভ ইত্যাদির জন্যই প্রধানমন্ত্রীকে খুশি করতে লন্ডনে দেশনেত্রীর চিকিৎসা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াতেই ষড়যন্ত্রতত্ত্বে মেতেছেন বলেও মন্তব্য করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, দেশে তাদের সৃষ্ট দারিদ্র, অবিচার, নিষ্ঠুর নিপীড়ন আর গুম, খুন ও লাশ ফেলার রাজনীতি ঢেকে ফেলার জন্যই তারা লন্ডনে চিকিৎসাধীন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।

বিএনপির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র রটনার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে ৫ জানুয়ারির মতো একতরফা নির্বাচন করা দাবি করে বিএনপি নেতা আরও বলেন, তাতে কোনো লাভ হবে না। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই আগামী সাধারণ নির্বাচন হবে।

Facebook Comments
Please follow and like us: