পুলিশের নিরপেক্ষতা হাস্যকর জায়গায় ঠেকেছে : রিজভী

ক্রাইমবার্তা রিপোর্ট:বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আওয়ামী লীগের পক্ষে অবস্থান নেয়ায় পুলিশের নিরপেক্ষতা এখন জনগণের কাছে হাস্যকর জায়গায় ঠেকেছে। এই স্বাধীন দেশে বিরোধী দলের ওপর পুলিশের উন্মত্ত হামলা মানুষকে সেই পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর নৃশংসতার কথাই স্মরণ করিয়ে দেয়।
আজ রোববার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, দলীয় স্বার্থে ব্যবহার করতে গিয়ে সুকৌশলে পুলিশের মেরুদণ্ড ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। দেশের জনগণ কেন পুলিশকে আওয়ামী অপশাসন ঠেকানোর লাঠিয়াল বলে ভাববে?
সরকারের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, এ বিষয়গুলো নিয়ে পুলিশের চিন্তাভাবনা করা দরকার। জন-ইচ্ছার বিরুদ্ধে দাঁড়ালে সুনাম নষ্টের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠান ধসে যায়। তিনি বলেন, ‘আপনাদের (পুলিশ) অনুরোধ করছি, ফ্যাসিবাদ ও স্বৈরাচারের উপাসক হবেন না।
এ ছাড়া রিজভী বলেন, স্বাধীনতাযুদ্ধে পুলিশবাহিনীর অবদান নিঃসন্দেহে অবিস্মরণীয়। ২৫ মার্চের কালরাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী প্রথমেই রাজারবাগ পুলিশ লাইন আক্রমণ করে। দেশমাতৃকা রক্ষায় পুলিশের আত্মদান মানুষ এখনো মনে রেখেছে।
গতকাল শনিবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইনস মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, পুলিশ আস্থা অর্জন করতে পেরেছে বলে মানুষ পুলিশকে ভালোবাসে। এখন যে পুলিশ তৈরি হয়েছে, সেই পুলিশ আর আগের পুলিশ এক নয়। এখন মানুষ পুলিশকে আর ভয় পায় না, ভালোবাসে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এক বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘দেশের বরেণ্য রাজনীতিবিদ, আইনজীবী, ছাত্র, যুবক, নারীসহ বিএনপি ও বিরোধী দলের অসংখ্য নেতা-কর্মীদের ধরার জন্য চিরুনি অভিযান, আটক এবং বাসায় বাসায় হামলার পরও পুলিশের প্রতি ভালোবাসা বাড়ছে? গুম, খুন ও বিচারবহির্ভূত হত্যার কথা নাহয় বাদই দিলাম। হায় সেলুকাস! সরকারের অঙ্গসংগঠনের ভূমিকা পালন করেছে বলেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পুলিশের প্রতি মানুষের ভালোবাসার কথা বলছেন।’
বিএনপির নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তারের বিষয়ে রিজভী বলেন, গতকাল লা মেরিডিয়ান হোটেলে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সভা চলাকালে ও সভা শেষে বেরিয়ে যাওয়ার পর রাস্তা থেকে ৩৫ জনের অধিক নেতা-কর্মীকে গোয়েন্দা পুলিশ আটক করেছে। গত পাঁচ দিনে ঢাকাসহ সারা দেশে ৫০০ জনেরও বেশি নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। তিনি অভিযোগ করেন, সরকার ‘দুরন্ত গতিতে’ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দিয়ে বেপরোয়া গ্রেপ্তার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

০৪ ফেবরুয়ারী,২০১৮শনিবার:ক্রাইমর্বাতা.কম/প্রতিনিধি/আসাবি

Facebook Comments
Please follow and like us: