সীমান্তে বিজিবি-বিজিপির পতাকা বৈঠক নিরাপত্তার অজুহাতে অতিরিক্ত সেনা, গুলি করার কথা অস্বীকার

ক্রাইমবার্তা ডেস্করিপোর্ট:    অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার জন্য সীমান্তে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে মিয়ানমারের সেনারা। এ সময় তারা গুলি করার কথা অস্বীকার করে।

শুক্রবার বিকালে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু সীমান্তের নোম্যান্সল্যান্ডে বিজিবি-বিজিপির পতাকা বৈঠক শেষে এ কথা জানায় বিজিবি।

বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে অংশ নেন সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল।

এর আগে বৈঠক হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন বিজিবির ৩৪ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মঞ্জুরুল আহসান খান।

গত কয়েক দিন ধরে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু সীমান্তে উত্তেজনা চলছে। সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়ার ওপারে ৫০ গজের মধ্যেই ভারি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছেন মিয়ানমারের সেনারা। অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে টহল বাড়ায় মিয়ানমারের বর্ডার গার্ড পুলিশ বিজিপিও।

এতে আতঙ্কে রয়েছে নোম্যান্সল্যান্ডের প্রায় ছয় হাজার রোহিঙ্গা। পরিস্থিতি মোকাবেলায় সীমান্তের এপারে জনবল বাড়ায় বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবিও।

বৃহস্পতিবার রাতে সীমান্তে ফাঁকা গুলিবর্ষণের পর পতাকা বৈঠকের জন্য মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষীদের চিঠি পাঠানো হয়।

Facebook Comments
Please follow and like us: