আসামীর সুন্দরী স্ত্রীর সাথে অসদাচরণের অভিযোগে সাতক্ষীরায় এসআই ও এএসআই ক্লোজড!

ক্রাইমবার্তা ডেস্করিপোর্ট: সদরের ফিংড়ী গ্রামে আসামী আটক করতে যেয়ে আসামীর সুন্দরী স্ত্রীর সাথে অসদাচরণের অভিযোগে এক এসআই ও এক এএসআইকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। শুক্রবার আদেশ আসার পর শনিবার তাদেরকে পুলিশ লাইনে নেয়া হয়। তবে সদর থানার ওসি (ইনটেলিজেন্স) মহিদুল হক রাতে ক্লোজড করার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও প্রশাসনিক কারণে লাইনে নেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন। এ ঘটনায় একজনকে আটকেরও গুঞ্জন রয়েছে।
প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়ন পরিষদের সামনের বাসিন্দা পশু চিকিৎসক আমজাদুর রহমান আমজাদের নামে বিগত ২০১২ সালে একটি নাশকতার মামলা হয়। এ মামলায় তিনি জামিনে থেকে নিয়মিত আদালতে হাজির আছেন। তিনি জামাতের সাথে সংশ্লিষ্ট না থাকার পরও ওই মামলায় নাম থাকার কারণে তৎকালিন সময়ে তার নাম প্রত্যাহারের জন্য জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতারা পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে আলাপ করেন। পুলিশ তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার আশ্বাস দিলেও গোপনে অভিযোগপত্র দেয়।
সূত্রানুযায়ী গত পহেলা মার্চ রাতে সাতক্ষীরা সদর থানার এসআই রাকিবুল ও এএসআই সাগর তাদের নিজস্ব সোর্স নিয়ে আমজাদুর রহমানকে ফের আটক করতে যায়। রাতে তিনি ঘেরে থাকায় প্রথম দিন খুঁজে পায়নি পুলিশ। পরদিন রাতে পুলিশ আবারো তাকে তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করে। অভিযোগ রয়েছে, ওই রাতেই তাকে ছেড়ে দেয়ার শর্তে ২০ হাজার টাকা দাবি করে পুলিশ। এরমধ্যে ৩ হাজার টাকা নিয়ে ছেড়ে দিয়ে আসে। পরদিন আবারো যেয়ে ওই পরিবারের সাথে অশালীন আচরণ করেন বলে ওই পরিবারের কর্তা আমজাদুর রহমান রাতে দৈনিক পত্রদূতকে নিশ্চিত করেন।
এ ঘটনায় পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের কর্ণগোচর হলে উপরোক্ত দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে ক্লোজড করে লাইনে নেয়া হয়। একই সাথে পুলিশের সোর্স মনজিতপুরের জাহাঙ্গীরকে আটক করার গুঞ্জন রয়েছে। কিন্তু পুলিশের কোন দায়িত্বশীল সূত্র জাহাঙ্গীরের আটকের বিষয়ে নিশ্চিত করেনি।

Facebook Comments
Please follow and like us: