সাতক্ষীরা এল্লাচর চিংড়ি চাষ প্রদর্শনী খামারে অনিয়মের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি: সদর উপজেলার চিংড়ি চাষ প্রদর্শনী খামার নবনির্মিত রাস্তা, গলদা হ্যাচারী ও গ্যারেজের মোট এক কোটি ৪৩ লাখ টাকার কাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। অবশ্য ঠিকাদার প্রতিনিধি ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের দাবি সঠিকভাবে কাজ করা হয়েছে।
এলাকাবাসি জানান, এল্লাচর চিংড়ি চাষ প্রদর্শনী খামার নবনির্মিত রাস্তা, গলদা হ্যাচারী ও গ্যারেজের কাজ দায়সারাভাবে করা হয়েছে। নি¤œমানের সামগ্রী দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে ভবন, সড়ক ও গ্যারেজ।
সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে জামান এন্টারপ্রাইজের পরিচালক ঠিকাদার মিজানুর রহমান দ্রুত কাজ শেষ করেছেন। কাউকে কাজের সিডিউল দেখাতে চাননি ঠিকাদার প্রতিনিধি ও কর্মকর্তারা। কাজের অভিযোগ তুলে ধরে এলাকাবাসি বারবার প্রকৌশলী গৌতম কুমার সানার কাছে কাজের সিডিউল দেখার জন্য ধর্ণা দিয়েও লাভ হয়নি।
অভিযোগ করে, শেখ তোয়েবুর রহমান, মীর মাহবুব হাসান ও শেখ ফয়সাল হোসেন জানান, গলদা হ্যাচারীতে যে থাই গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে তা বাজারের সবচেয়ে নি¤œ মানের গ্লাস, সড়ক ও গ্যারেজ এর কাজে যে রড ব্যবহার করা হয়েছে তাতে পুকুর চুরি করা হয়েছে।
এলাকাবাসি আরো জানায়, দায়সারাভাবে কাজ করে সকল নির্মাণ কাজ প্রায় সম্পন্ন করা হয়েছে। এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়। ঠিকাদার প্রতিনিধি এলাকার কোন ব্যক্তিকে তোয়াক্কা করে না।
এলাকাবাসি ঠিকাদার প্রতিনিধিকে কাজ ভাল করে করার জন্য বললেও তাতে কোন ভ্রুক্ষেপ না করে সে বলে আমরা যা কাজ করবো তাই। আপনাদের খারাপ ভাল লাগায় আমাদের কিছু হবে না।
এব্যাপারে জানতে চাইলে ঠিকাদার মিজানুর রহমান মুঠোফোনে জানান, কাজ সঠিকভাবে শেষ করা হচ্ছে। এলাকার দু’একজন আমার কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা আদায় করতে চায়। আমি তাদের কথায় রাজি না হওয়ায় বিভিন্ন অপপ্রচার চালাচ্ছে মাত্র। আপনারা খোঁজ খবর নিয়ে দেখেন।
এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী গৌতম কুমার সানা জানান, ১৯ থেকে ২০ হতে পারে তার বেশী কিছু সম্ভব না। আমিসহ অফিসের কর্মকর্তারা সঠিক ভাবে কাজ তদারকি করছে। কাজে পুকুর চুরির কোন সুযোগ নেই। কাজ ভাল হয়েছে।
এল্লাচর মৎস্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাজমুল হুদা জানান, কাজ সঠিকভাবে সম্পন্ন হচ্ছে। ঠিকাদারের সাথে কারো সমস্যা থাকলে সেটা আমাদের বিষয় নয়। আমরা কাজ বুঝে নিচ্ছি। কাজে অনিয়মের কোন সুযোগ নেই।

Facebook Comments
Please follow and like us: