কালিগঞ্জে এক বিধবা নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ ও চাঁদাবাজির অভিযোগে প্রতারক গ্রেপ্তার

বিশেষ প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার ঝাউডাঙ্গার এক নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ এবং নগ্ন ছবি তোলার পর সেগুলো ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে চাঁদা নেয়ার অভিযোগে পুলিশ শাহাদাত হোসেন (৪৮) নামে এক প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের ইন্দ্রনগর গ্রামের নুরালী শেখের ছেলে।
মামলার বর্ণনাসূত্রে জানা যায়, সাতক্ষীরা সদর থানার ঝাউডাঙ্গা বাজার সংলগ্ন একটি এতিমখানায় রাধুনি হিসেবে কর্মরত এক বিধবা নারীর (৪৫) সাথে মোবাইলে পরিচয় হয় শাহাদাত হোসেনের। বিভিন্ন সময়ে মোবাইলে আলাপ আলোচনার এক পর্যায়ে শাহাদাত হোসেন ওই নারীকে মাসিক ১২ হাজার টাকা বেতনে কাজ দেয়ার প্রলোভন দেখায়। কাজ পাওয়ার আশায় ওই নারী গত ৮ জুলাই রবিবার মেয়েকে (২২) সাথে নিয়ে কালিগঞ্জের নলতার ইন্দ্রনগরে আসেন। শাহাদাত হোসেন তাদের দু’জনকে বেলা দেড়টার দিকে বাড়িতে নিয়ে যান। কিছুক্ষণ পর তিনি মেয়েকে একটি কক্ষে আটকে রেখে ওই বিধবা নারীকে অপর একটি কক্ষে নিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। এরপর ওই নারীর নগ্ন ছবি মোবাইলে ধারণ করে সেগুলো ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে তার নিকট ১ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। অনেক কাকুতি মিনতি করে ঝাউডাঙ্গা বাজারে যেয়ে দশ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে তাদেরকে বাড়ি যাওয়ার সুযোগ দেয়া হয়। এসময় মেয়ের গলা থেকে ২৪ হাজার টাকা মূল্যের একটি সোনার চেইন জোরপূর্বক ছিনিয়ে নেয় শাহাদাত হোসেন। ওই নারী ঝাউডাঙ্গা বাজারে যেয়ে শাহাদাত হোসেনের দেয়া বিকাশ নম্বরে (০১৯৬৮৯১২৫৭১) দশ হাজার টাকা প্রেরণ করেন। পরবর্তীতে বিষয়টি থানায় জানালে সোমবার দুপুরে পুলিশ ইন্দ্রনগর থেকে ধর্ষক ও চাঁদাবাজ শাহাদাত হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। একই সময়ে শাহাদাত হোসেনের বিবাহিত এক মেয়েকে থানায় আনার পর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয়া হয়। এঘটনায় ধর্ষিতা নারী বাদী হয়ে কালিগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ হাসান হাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটক শাহাদাতকে মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
এলাকাবাসী জানান, শাহাদাত হোসেন একজন চিহিৃত লম্পট ও প্রতারক। এর আগেও নানা কৌশলে নারীদের শ্লীলতাহানীসহ বিভিন্ন ব্যক্তির নিকট থেকে প্রতারণার মাধ্যমে টাকা ও জিনিপত্র ছিনিয়ে নিয়েছে। ঝামেলা এড়াতে কেউ তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেনি বলে তারা জানান।

Facebook Comments
Please follow and like us: