সাতক্ষীরায় পুজামন্ডপ ভাংচুর চেষ্টার অভিযোগে হিন্দু সম্প্রদায়ের এক ব্যক্তিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা

ক্রাইমবার্তা রিপোট:সাতক্ষীরা: সাতক্ষীরায় দুর্গা মন্দিরের দুর্গা প্রতিমা ভাংচুর চেষ্টার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে স্থানীয়রা। শনিবার সদরের গোদাঘাটা গ্রামে আটকের ঘটনা ঘটে। আটককৃত বিভুতিভূষন তে কামার গোদাঘাটা গ্রামের কর্মকার পাড়ার মৃত সতিন্দ্র নাথ সরকারের পুত্র । তিনি হিন্দু সম্প্রদায়ের একজন
ধর্মগুরু হিসেবে নিজেকে প্রচচার করার চেষ্টা করে।
শনিবার গ্যাম্য সালিশে স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের বিভুতিভূষন ওরফে তে কামারকে হাতে নাতে প্রতিমা ভাংচুরের চেষ্টা ও ডেকোরের ক্ষতি করার অভিযোগে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাত ৮টার দিকে গোদাঘটা কাপালি পূজা মন্ডপের গেট ভাংচুর চেষ্টার সময় জনতার হাতে আটক হন তে-কামার। এসময় পুজামন্ডপের ডেকোরটর কেটে নষ্ট করা হয়। মন্ডপের গেট কোরাত দিয়ে কাটার চেষ্টা করা হয়। এতে পুজা মন্ডপ ও ডেকারেটারের ক্ষতি হয়। স্থানীয় পুজা উৎযাপন কমির সভাপতি গোপালবাবু ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,ঘটনা অনাকাঙ্খিত। তাই ৫ পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা ও মোচলকার মাধ্যমে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
এসময় মন্দির কমিটির সেক্রেটারী অরবিন্দু ঘোষসহ মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। গ্রাম্য শালিশের মাধ্যমে তে কামারকে ছেড়ে দেওয়ায় এলাকাবাসির মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
এ বিষয়ে গোদাঘাটা ৮ নং ওয়ার্ডের মেম্বর আব্দুল হাই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন মন্দির কমিটি ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে তে কামারকে ছেড়ে দেয়। পরে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ।
এলাকাবাসি তে কামারের উপযুক্ত ও দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

 

Facebook Comments
Please follow and like us: