কালিগঞ্জে প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ

ক্রাইমবার্তা রিপোট:সাতক্ষীরা:: কালিগঞ্জের পল্লীতে খুকুমনি (৩৬) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার রতনপুর ইউনিয়নের পালিতকাটি গ্রামে। নিহত খুকুমনি ওই এলাকার বাহারাইন প্রবাসী আব্দুল্লাহ টাপালীর স্ত্রী।
নিহত খুকুমনির মা হামিদা বেগম (৬০) জানান, প্রায় ৩ বছর আগে তার জামাতা আব্দুল্যাহ টাপালী কাজের জন্য বাহারাইনে যায়। সেই থেকে খুকুমনি তার দুই ছেলেকে নিয়ে পালিতকাটি গ্রামের একটি বাড়িতে একা বসবাস করত। সেই সুযোগে পাশ্ববর্তী শ্যামনগর উপজেলার কুলতলী গ্রামের সুভাষ মন্ডলের ছেলে বাবু মন্ডল (৩৯) তার মেয়েকে বিভিন্ন সময় উত্যক্ত ও কুপ্রস্তাব দিতে থাকে। কিন্তু খুকুমনি তার প্রস্তাবে রাজি না হয়ে বাবু মন্ডলের পরিবারের উত্যক্তের বিষয়টি জানায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে খুকুমনিকে জীবননাশের হুমকি প্রদান করছিল বাবু মন্ডল।
তিনি আরও জানান, খুকুমনির দু’টি ছেলে। বড় ছেলে ঘটনার আগের দিন বসন্তপুরে তার বড় চাচার বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলো। আর ছোট ছেলে হাফেজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র। সে মাদ্রাসায় থাকে। কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে বাবু ও তার সহযোগীরা খুকুমনিকে গণধর্ষণের পর হত্যা করেছে বলে ধারণা করছেন হামিদা বেগম। খবর পেয়ে থানার উপ-পরিদর্শক মোমরেজ হোসেন ঘটনাস্থলে যেয়ে মৃতদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করেছেন। ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ মর্গে প্রেরণ করা হবে বলে তিনি জানান। এ ব্যাপারে নিহত খুকুমনির ভাগ্নে বাবু ঢালী বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
কালিগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রাজিব হোসেন জানান, কীভাবে মৃত্যু হয়েছে সে ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

Facebook Comments
Please follow and like us: