তালার জাতপুরে প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় রমরমা মাদক ব্যবসা!

তালা প্রতিনিধি: তালা উপজেলার জাতপুরসহ আশপাশের কয়েকটি গ্রামে মাদক ব্যবসা রমরমা হয়ে উঠেছে। একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় মাদক ব্যবসায়ীরা এখানে ইয়াবা, ফেন্সিডিল ও গাজার রমরমা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্চে। অভিযোগ উঠেছে, মাদক ব্যবসায়ীরা জাতপুর বাজারে নাম সর্বস্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে ব্যবসার আড়ালে চালিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসা। এতে এলাকার কেউ বাঁধা দিতে আসলে তারা নানাবিধ হয়রানীসহ হামলা ও মামলার শিকার হচ্ছে। তালা থানা পুলিশের কর্তা ব্যক্তিদের সাথে ওই সকল মাদক ব্যবসায়ীদের সখ্যতা প্রকাশ্য থাকায় এখন কেহ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না। প্রকাশ্য মাদক বিকিকিনি ফলে এলাকায় আইন শৃঙ্খলার অবনতি হওয়া সহ যুব সমাজ চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার একাধিক ব্যক্তি জানান, যশোরের কেশবপুর, খুলনার ডুমুরিয়া ও পাইকগাছা উপজেলার নিকটবর্তীতে অবিস্থত তালার জাতপুর বাজার। এছাড়া সীমান্ত জেলা সাতক্ষীরা থেকেও জাতপুর বাজার নিকটবর্তী এবং এখানে যাতায়াতের জন্য একাধিক থানা ও জেলা সদরের সাথে রয়েছে একাধিক সড়কপথ। যেকারনে মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে জাতপুর বাজার নিরাপদ স্থান হওয়ায় এখানকার একাধিক স্থানে গড়ে উঠেছে মাদক বিকিকিনির স্পট! ফলে, জাতপুর বাজার সংলগ্ন কয়েকটি গ্রামের মাদক ব্যবসায়ীরা অন্য জেলা ও উপজেলার মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে সখ্যতা গড়ে এই বাজার থেকে বিভিন্ন স্থানে ইয়াবা, ফেন্সিডিল ও গাজা সরবারহ করছে ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাজার সংলগ্ন বসবাসকারী এক মহিলা বলেন, মাদক ব্যবসা চালিয়ে এলাকার অনেকেই মুহুর্তের মধ্যে লক্ষ লক্ষ টাকার মালিক হয়ে উঠেছে। তারা বাজারে নাম মাত্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে মূলত সেখানে বসে জাতপুর বাজার সহ আশপাশের এলাকায় মাদক বেচাকেনার চুক্তি করে। এটা জানার পরও তালা থানা পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কার্যক্রর কোনও ব্যবস্থা না নেয়ায় মাদক ব্যবসায়ী বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এই সকল মাদক ব্যবসায়ীরা স্থানীয় একটি রাজনৈতিক মহল এবং উপজেলা পর্যায়ের প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের শেল্টারে থেকে এলাকার সাধারণ মানুষের উপর একচ্ছত্র আধিপাত্য বিস্তার করে যাচ্ছে। এলাকার জমি জোর দখল, পরিবারের মধ্যে বিরোধ বাধিয়ে দেয়া, বিভিন্ন ব্যক্তিকে মামলায় জড়িয়ে দেয়া, মাদক ব্যবসার প্রতিবাদ কারীদের উপর হামলা সহ নানাবিধ হুমকি দিয়ে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে নিজেদের মাদক ব্যবসা নিরাপদ রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এই সকল মাদক ব্যবসায়ী ও তাদের গড ফাদারদের মধ্যে কেহ সাজা প্রাপ্ত আসামী আবার কারো বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধের একাধিক মামলা বিচারাধিন রয়েছে।

ওই মহিলা জানান, সম্প্রতি জাতপুর বাজারের এক মাদক ব্যবসায়ী অবৈধ ক্ষমতা ও টাকার জোরে অন্যের জমি জোর দখলের পরিকল্পনা করে। বিষয়টি জানতে পেরে জাতপুর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এস.আই শাহিদুর রহমান জোর দখল ঠেকানোর জন্য ঘটনাস্থলে গেলে ওই মাদক ব্যবসায়ী প্রকাশ্যে এস.আই শাহিদুরকে অপদাস্থ সহ লাঞ্জিত করে এবং তাকে দেখে নেবার হুমকি দেয়। মাদক ব্যবসায়ী ও তাদের গডফাদাররা প্রভাবমালী হওয়ায় এস.আই শাহিদুর রহমান ঘটনাস্থল থেকে চলে যেতে বাধ্য হয়।

Check Also

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আইসিইউতে

ক্রাইমবার্তা রিপোট : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রাজধানীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *