বৃহস্পতিবার , ১৩ আগস্ট ২০২০

জাকমজকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে নববধূকে ঘরে তুলে নিলেন জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার মোস্তাফিজুর রহমান

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা।।

বিয়েটা অনেকটা চুপিসারে সম্পন্ন হলেও জাকমজকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে নববধূকে ঘরে তুলে নিলেন জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার কাঁটার মাস্টার খ্যাত মোস্তাফিজুর রহমান। বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয স্বজন ও এলাকাবাসী ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার আড়াাই হাজার মানুষের আগমণে মুখরিত ছিল এই তারকা ক্রিকেটারের বৌভাত অনুষ্ঠাণটি।

গতকাল শনিবার দুপুর থেকে শুরু হওয়া বৌভাত অনুষ্ঠাণের অতিথিরা আসতে শুরু করে সকাল থেকেই। তবে আজকের এই আনন্দের দিনও মিডিয়ার সামনে চুপ হয়ে গেলেন মোস্তাফিজুর রহমান। বাড়িতে সুসজ্জিত আসরে বধু সুমাইয়া পারভীন শিমুকে নিয়ে পাশাপাশি বসেছিলেন এই কাটার মাস্টার। কিন্তু কোন কথা তিনি বলেননি। তবে মোস্তাফিজুর রহমানের বাবা আবুল কাশেম গাজী ছেলের জন্য দেশবাসীসহ সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

এদিকে, সাতক্ষীরার কালিগজ্ঞ উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামে মোস্তাফিজুর রহমানের বৌভাত অনুষ্ঠাণে আপ্যায়নের ব্যবস্থা করা হলেও হাজির হয়েছেন প্রায় তিন হাজারের অধিক মানুষ। অতিথি আপ্যায়নের খাওয়ার জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে খাসির বিরয়ানী, গরুর গোশত, দধি ও কোকোকোলা। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের জন্য ছিল খাসির বিরয়ানী।

অনুষ্ঠাণে যোগ দিয়েছেন, সাতক্ষীরা-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্য মন্ত্রী ডাঃ আফম রুহুল হক, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি মুনসুর আহমেদ, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমানসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, গত ২২ মার্চ সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের বাসিন্দা সুমাইয়া পারভীন শিমুকে বিয়ে করেন মোস্তাফিজুর রহমান। শিমু বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী। শিমুর বাবা রওনাকুল ইসলাম বাবু মোস্তাফিজুর রহমানের মেজো মামা। মায়ের ইচ্ছাতে পারিবারিকভাবেই মামাতো বোন সুমাইয়া পারভীন শিমুকে বিয়ে করেন ‘কাটার মাস্টার’।

 

 

About ক্রাইমবার্তা ডটকম

Check Also

দেশের খেলা ফেরায় স্বস্তি সৌম্যর

ক্রাইমবার্তা রিপোট : শ্রীলংকার বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে করোনা পরবর্তী আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *