সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৯
আশাশুনিতে ১৯ টি গরু চুরি: আতংকে মানুষ

ক্রাইমর্বাতা রিপোট: সাতক্ষীরা:  ,আশাশুনি : আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি ও কুল্যা ইউনিয়নে গরু চুরির ঘটনা অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে। একের পর এক চুরির ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ পর্যন্ত ৬ জনের গোয়ালঘরে হানা দিয়ে ১৯ গরু চুরি করেছে সংঘবদ্ধ চোরেরা।
পূর্ব কাদাকাটি গ্রামের মৃত ভৈরব গাইনের পুত্র মনিন্দ্র গাইনের গোয়ালঘরে দু’দফায় ৬টি গরু, যদুয়ারডাঙ্গা গ্রামের ভবেনের ৪ গরু, সত্য রঞ্জনের ৩ গরু, বাহাদুরপুর গ্রামের মৃত আফিল সরদারের পুত্র শফিকুলের ৩টি গরু এবং মহিষাডাঙ্গা গ্রামের মৃত অনন্ত বিশ্বাসের পুত্র নেপালের ৩টি গরু মোট ১৯ টি গরু চুরি হয়েছে। এপর্যন্ত চোর সনাক্ত বা চোরাই গরু উদ্ধার হয়নি। কাদাকাটি ইউপি চেয়ারম্যান দীপঙ্কর কুমার সরকার দিপ বলেন, তিনি গরু চুরির বিষয়টি উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভায় উঠিয়েছিলাম। সভায় এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশী টহলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও টহল দেওয়া হচ্ছেনা। মিটিং-এ উত্থাপনের পরে আরও ৩টি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে। বিষয়পি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে পুনরনায় জানানো হয়েছে।এদিকে বাহাদুরপুর গ্রামে শফিকুলের বাড়ি থেকে ৩ গরু চুরি ও ইউনুছ আলীর বাড়ি থেকে গরু চুরির পর ফেলে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গরু মালিক, স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ গ্রামবাসী জানান, গরু চুরির ৮/১০ দিন আগে থেকে বাহাদুরপুর গ্রামের মোকছেদ সরদারের পুত্র মনি বহিরাগত অচেনা এক ব্যক্তিকে তাদরে বাড়িতে এনে রেখেছিল। সন্দেহজনক চালচলনে জিজ্ঞাসা করলে তার ভাইয়ের ভায়রা বলে পরিচয় দিত। যে দিন গরু চুরি হয়েছে সেই দিন থেকে তাদের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছেনা। তারাই তাদের সহযোগিদের নিয়ে গরু চুরির ঘটনা ঘটাতে পারে বলে তাদের সন্দেহ হচ্ছে। বিধায় গ্রাম্য শালিসে তাদেরকে হাজির থাকতে পরিবারের সদস্যদের জানান হলেও তারা আসেনি এবং পলাতক রয়েছে। পরবর্তীতে নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যানকে অবহিত করে সকল ইউপি সদস্যের উপস্থিতিতে বিষয়টি জানা-শুনার জন্য ৩০ আগষ্ট পুনরায় তাদেরকে আহবান করা হয়। কিন্তু তারা উপস্থিত হয়নি। বরং আহুত অনুষ্ঠানে বিশৃংখলা সৃষ্টির চেষ্টা করা হলে সভা পন্ড হয়ে যায়। এনিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে বিরুপ প্রতিক্রিয়া ও নানা কথার জন্ম দিচ্ছে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসন ও থানা প্রশাসনকে জরুরী ভিত্তিকে ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান হয়েছে। সাথে সাথে কাদাকাটি ও কুল্যা ইউনিয়নে গরু চুরির বিষয়টি আমলে নিয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে জোর দাবি জানান হয়েছে।

Facebook Comments
Please follow and like us:
একই রকম সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আবু শোয়েব এবেল, ------------------------- - ইউনাইর্টেড প্রির্ন্টাস,হোল্ডিং নং-০, দোকান নং-০( জাহান প্রির্ন্টস প্রেস),শহীদ নাজমুল সরণী,পাকাপুলের মোড়,সাতক্ষীরা। মোবাইল: ০১৭১৫-১৪৪৮৮৪,০১৭১২৩৩৩২৯৯ e-mail: crimebarta@gmail.com

চেয়ারম্যান: আলহাজ্ব তৈয়েবুর রহমান (জাহাঙ্গীর) ------------------------------- যশোর অফিস: রিমন প্যালেস, দ্বিতীয় তলা( ভৈরব আইটি সেন্টার),বেজপাড়া মেইন রোড, বনানী মোড়( আর এন রোড জোড়া কুৃঠির পিছনে) কোতয়ালী,যশোর।