অক্টোবর ২০, ২০১৯
তালায় আ.লীগে অনুপ্রবেশকারী চেয়ারম্যান জাকিরের তান্ডবে অতিষ্ঠ মানুষ সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

ক্রাইমবার্তা রিপোটঃ  : আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারী সরদার জাকিরের তা-বে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে তালার মানুষ। পুলিশের উপর হামলা, দখলবাজি, প্রধানমন্ত্রীর গৃহহীন প্রকল্পে টাকা উত্তোলন, সন্ত্রাসী বাহিনী গঠণ করে তান্ডব চালানোসহ নানা অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। সরদার জাকির তালা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও তালা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। তালা সদর ইউনিয়নের মুড়াকলিয়া ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ইয়াছিন সরদারের চাচা ওদুদ সরদারকে কুপিয়ে প্রভাব খাঁটিয়ে তাদের নামেই মামলা দেওয়া হয়েছে। এসব অভিযোগ এনে শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন তালার মুড়াকলিয়া গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল গফুরের ছেলে মহসিন সরদার।
সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে মহসিন সরদার জানান, সরদার জাকির তালা সদরের বারুইহাটি গ্রামের বাসিন্দা। জামায়াত-বিএনপি, জাতীয় পার্টি, আওয়ামী লীগসহ সকল রাজনৈতিক দলের নেতা রয়েছে জাকির পরিবারে। আমার পরিবার আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। বাবা আব্দুল গফুর সরদার তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বপালন করছে। তিনি তালা সদরের ৪ নং মুড়াকলিয়া ওয়ার্ডের বার বার নির্বাচিত ইউপি সদস্য ছিলেন। বাবা নির্বাচন থেকে সরে আসার পর আমার বড় ভাই ইয়াসিন সরদার নির্বাচন করে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়। শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদের তালা সদর ইউনিয়নের সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছে সে।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারী তালা উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান সরদার জাকির হোসেনের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে তালা উপজেলার মানুষ। এক সময়ে এই সরদার জাকির বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল। পরবর্তীতে যোগ দেয় জাতীয় পার্টিতে। এরপর সুযোগ সন্ধানী সরদার জাকির আওয়ামী লীগেযোগ দেয়। এরপর ২০১৫ সালে সে যুবলীগের সভাপতি ও পরবর্তীতে তালা সদরের চেয়ারম্যান হয়। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর আমার মাছের ঘেরের দিকে কুনজর পড়ে সরদার জাকিরের। ৭৫ বিঘা মাছের ঘের সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে দখল করে নেয়। গত বুধবার রাতে আমার দখলে থাকা অবশিষ্ট ৫০ বিঘা মাছের ঘেরের বাঁধ কেঁটে দিয়ে সরদার জাকিরের দখলে থাকা মাছের ঘেরের মধ্যে মাছ ঢুকিয়ে নেয় সরদার জাকির। আমার মাছের ঘেরে থাকা এক লাখ ৫১ হাজার ৭শ গলদার পোনাসহ বিভিন্ন প্রজাতির শত শত মন মাছ এখন সরদার জাকিরের দখলে থাকা ঘেরের মধ্যে চলে যায়। ঘেরের বাঁধ কাটার কারণ জানতে চাওয়ায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আমার ছোট চাচা ওদুদ সরদারকে ধারালো দা দিয়ে কোপায় সরদার জাকিরের সন্ত্রাসীরা। কোপানোয় অংশ নেয় মুড়াকলিয়া এলাকার আব্দুল গণি মলঙ্গী, গফফার মলঙ্গী, বাবুল মলঙ্গীসহ সন্ত্রাসী বাহিনী। বর্তমানে চাচা ওদুদ সরদার সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এরপর শুক্রবার সন্ধ্যায় তেঁতুলিয়া বাজারের আমার উপর হামলা চালায় সরদার জাকির ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। ৩০-৪০টি মোটর সাইকেলে যোগে এসে আমাকে মারপিট শুরু করে। এ সময় আমার ভাইকে উদ্দেশ্য করে বলতে থাকে ইয়াসিন মেম্বার কই, ওকে মেরেই ফেলবো। একথা বলতে থাকে সরদার জাকিরসহ তার ভাই ফারুক ও জেয়ালার আসাদ নিকারী। হামলার এ ঘটনা শুনে তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেলের নেতৃত্বে একটি পুলিশ দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আমাকে উদ্ধার করে। এরপর এসব ঘটনায় তালা থানা পুলিশের কাছে অভিযোগ নিয়ে গেলে ওসি মেহেদী রাসেল সাফ জানিয়ে দেয় আমি কোন মামলা নিতে পারবো না। এদিকে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আমার চাচা ওদুদ সরদারকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় তালা থানার ওসি মেহেদী রাসেলের উপর প্রভাব খাঁটিয়ে সরদার জাকির উল্টো মামলায় ফাঁসিয়ে দিয়েছে আমাকেসহ আমার ভাইদের।
সংবাদ সম্মেলনে মহসিন সরদার আরও জানান, ২০১৫ সালের ২ সেপ্টেম্বর তালা উপশহরে এই সন্ত্রাসী সরদার জাকির যুবলীগ সভাপতি পদ পেয়েই তালা থানার পুলিশের উপ পরিদর্শক মনির হোসেনের উপর হামলা চালিয়ে মারপিট করে। এ ঘটনায় সন্ত্রাসী জাকিরকে পুলিশ গ্রেফতার করে ও পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় দ্রুত বিচার আইনে মামলা হয় তালা থানায়। চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর গড়ে তুলেছে সন্ত্রাসী বাহিনী। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে সরদার জাকির অবৈধ ইজিবাইক চালকদের কাছ থেকে সরদার মাহমুদুলের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করে। এছাড়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তালা সদর ইউনিয়নে ২৯৮টি গৃহহীন মানুষদের ঘর দিয়েছেন। এই ঘর থেকে প্রত্যেকের কাছ থেকে ২০-২৫ হাজার টাকা উত্তোলন করেছে। যখন সে চেয়ারম্যান ও যুবলীগ সভাপতি ছিল না তখন সরদার জাকির ৭০ লাখ টাকা ঋণ থাকলেও বর্তমানে সে ১০ কোটি টাকার মালিক ও কমপক্ষে ২০ বিঘা জমি ক্রয় করেছে। বিগত দিনে তালা উপজেলা নির্বাচনের সময় দলীয় মনোনয়নকে কেন্দ্র করে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে তালা সদরে কয়েক ঘন্টা অবরুদ্ধ করে অপমানিত করে। সরদার জাকিরের পারিবার জামায়াত-বিএনপি-জাতীয় পার্টি ও আ.লীগসহ সকল রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত। প্রকৃতঅর্থে এরা আওয়ামী লীগ পরিবারের কেউ নয়। দলকে ব্যবহার করে আওয়ামী লীগ পরিবারের লোকদের নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। যেকোন মুহূর্তে আমার ভাইসহ আমাদের জীবনহানির মত ঘটনা ঘটাতে পারে এই জাকির। বর্তমানে আমরা অসহায় হয়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মী ও প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করে পরিত্রাণ কামনা করছি।
তবে এসব অভিযোগের বিষয়ে তালা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও তালা সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সরদার জাকিরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।
অন্যদিকে, তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল বলেন, তেঁতুলিয়া বাজারে মারামারি হচ্ছে এমন সংবাদ পেয়েই সেখানে যাওয়া হয়। তবে সেখানে কোন মারপিটের ঘটনা ঘটেনি। এছাড়া সরদার জাকিরের লোকদের মারপিটের ঘটনায় মেম্বরের লোকজনদের বিরুদ্ধে একটা মামলা হয়েছে।

Facebook Comments
Please follow and like us:
একই রকম সংবাদ


www.crimebarta.com সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আবু শোয়েব এবেল

ইউনাইর্টেড প্রির্ন্টাস,হোল্ডিং নং-০, দোকান নং-০( জাহান প্রির্ন্টস প্রেস),শহীদ নাজমুল সরণী,পাকাপুলের মোড়,সাতক্ষীরা। মোবাইল: ০১৭১৫-১৪৪৮৮৪,০১৭১২৩৩৩২৯৯ e-mail: crimebarta@gmail.com