নভেম্বর ১২, ২০১৯
ডা. শফিকুর রহমান জামায়াতে ইসলামীর আমীর নির্বাচিত: কে হচ্ছেন সেক্রেটারী গোলাম পরওয়ার না মাসুম

ক্রাইমর্বাতা রিপোর্ট:  বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান সংগঠনের সদস্যগণের (রুকন) প্রত্যক্ষ ভোটে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর নির্বাচিত হয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার দলের এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। উল্লেখ্য যে, গত ১৭ অক্টোবর থেকে ১০ নবেম্বর পর্যন্ত এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন আজ নির্বাচনের ফল ঘোষণা করেছে।
ডা. শফিকুর রহমানের সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত: ডা. শফিকুর রহমান ১৯৫৮ সালের ৩১ অক্টোবর মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার ভাটেরা ইউনিয়নে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মরহুম আবরু মিঞা ও মাতার নাম মরহুমা খাতিবুন নেসা। তার বর্তমান ঠিকানা সিলেট মহানগরীর শাহপরান থানার সবুজবাগ এলাকায়। তিনি ১৯৮৩ সালে সিলেট মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করেন। তিনি ছাত্র জীবনে ইসলামী ছাত্রশিবিরের সিলেট শহর শাখার সভাপতি ছিলেন। তিনি ১৯৮৫ সালে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার সদস্য হন। তিনি ১৯৮৬ সাল থেকে ৮৮ সাল পর্যন্ত সিলেট জেলা শাখা জামায়াতের সেক্রেটারি ও ১৯৮৯ থেকে ৯১ পর্যন্ত সিলেট জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর এবং ১৯৯১ থেকে ৯৮ সাল পর্যন্ত সিলেট জেলা জামায়াতের আমীর, ১৯৯৮ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত সিলেট মহানগরী জামায়াতে ইসলামীর আমীর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৯৯৮ সালে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য মনোনীত হন। ২০১০ সাল থেকে জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল, ২০১১ সাল থেকে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য এবং ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর মাস থেকে ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ও ২০১৭ সাল থেকে বর্তমান মুহূর্ত পর্যন্ত বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেলের দায়িত্ব পালন করছিলেন।
বর্তমান সরকার তাকে একাধিকবার গ্রেফতার করে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে বন্দি করে রাখে। তিনি জনগণের ভোটাধিকার আদায়ের আন্দোলনসহ গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বিভিন্ন সময়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।
তিনি একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের চেয়ারম্যান, একটি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান এবং একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি অনেক এতিমখানা ও মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা এবং বহু দাতব্য চিকিৎসালয়, ক্লাব ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি একটি কামিল মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
তিনি সৌদি আরব, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ইতালি, স্পেন, গ্রীস, বেলজিয়াম, তুরস্ক, মালয়েশিয়া, আরব আমিরাত, ফিলিপাইন, ব্রুনেই প্রভৃতি দেশ ভ্রমন করেছেন।
তিনি ২ কন্যা ও ১ পুত্র সন্তানের জনক। তার স্ত্রী ডা. আমিনা শফিক ৮ম জাতীয় সংসদের সদস্যা ছিলেন। তার ২ মেয়ে চিকিৎসা শাস্ত্রে উচ্চতর শিক্ষা নিয়েছেন এবং একমাত্র পুত্র এমবিবিএস শেষ বর্ষের ছাত্র।

জামায়াতের একাধিক সূত্র বলছে, সারাদেশে তাদের প্রায় ৪৫ হাজার রুকন রয়েছেন। তাদের মধ্যে প্রায় ১৭ হাজার নারী। এই নারীদের ভোটে শফিকুর রহমান এগিয়ে যান।

জানতে চাইলে জামায়াতের ইউরোপ শাখার মুখপাত্র ব্যারিস্টার আবু বকর মোল্লাহ বলেন, ‘বাংলাদেশের রাজনৈতিক ধারায় গর্ব করার মতো বিষয় হলো, কোনও ধরনের বংশ-গোষ্ঠী বা অঞ্চলের ভিত্তিতে নয়, সম্পূর্ণভাবে সব রুকন-মেম্বারের মতামতের ভিত্তিতেই আমির নির্বাচিত হন। এভাবেই জামায়াতের আমির নির্বাচিত হয়েছেন ডা. শফিকুর রহমান।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমির নির্বাচনের প্রক্রিয়াটি বাংলাদেশের গণতন্ত্রের একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।’

জামায়াতের একাধিক প্রভাবশালী সূত্র জানায়, আমির নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর এখন নতুন আমির শপথগ্রহণ করবেন। এই শপথের পর তিনি দলের নেতাকর্মীর উদ্দেশে বক্তব্য দেবেন। এরপর নির্বাহী পরিষদের সঙ্গে বৈঠক করে দলের সেক্রেটারি জেনারেল মনোনীত করবেন।

জামায়াতের নতুন আমিরের ঘনিষ্ঠ একাধিক দায়িত্বশীল জানান, সেক্রেটারি জেনারেল হিসেবে এখন পর্যন্ত চার জনের নাম উচ্চারিত হচ্ছে। তারা হলেন, বর্তমান নায়েবে আমির অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার, রফিকুল ইসলাম খান, এটিএম মাসুম, হামিদুর রহমান আজাদ। এই চার জনের মধ্যে মিয়া গোলাম পরওয়ার সাবেক এমপি ও দলের নেতাকর্মীদের কাছে গ্রহণযোগ্য বলে পরিচিত। তবে নির্বাহী পরিষদের সদস্যদের কেউ কেউ এগিয়ে রাখছেন রফিকুল ইসলাম খানকে।

সেক্রেটারি জেনারেল নির্বাচন প্রসঙ্গে জামায়াতের ঢাকার একটি অঞ্চল-প্রধান  জানান, এ পদে বর্তমানে সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম মাসুম অনেকটাই চূড়ান্ত। সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল পদে তিনি প্রথমে আছেন। তার সম্ভাবনা বেশি।

Facebook Comments
Please follow and like us:
একই রকম সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আবু শোয়েব এবেল, ------------------------- - ইউনাইর্টেড প্রির্ন্টাস,হোল্ডিং নং-০, দোকান নং-০( জাহান প্রির্ন্টস প্রেস),শহীদ নাজমুল সরণী,পাকাপুলের মোড়,সাতক্ষীরা। মোবাইল: ০১৭১৫-১৪৪৮৮৪,০১৭১২৩৩৩২৯৯ e-mail: crimebarta@gmail.com

চেয়ারম্যান: আলহাজ্ব তৈয়েবুর রহমান (জাহাঙ্গীর) ------------------------------- যশোর অফিস: রিমন প্যালেস, দ্বিতীয় তলা( ভৈরব আইটি সেন্টার),বেজপাড়া মেইন রোড, বনানী মোড়( আর এন রোড জোড়া কুৃঠির পিছনে) কোতয়ালী,যশোর।