সাতক্ষীরায় গৃহবধূকে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন

ক্রাইমর্বাতা রিপোর্ট: কালিগঞ্জ:  সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার ধলবাড়ীয়া ইউনিয়নের বলারহুলা গ্রামে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মাহমুদা খাতুন শিলু (৪০) নামের এক গৃহবধূকে বেধড়ক মারপিটের পরে গাছের সাথে রশি দিয়ে বেঁধে রাখে প্রতিপক্ষরা। তাছাড়া মাকে উদ্ধার করতে এগিয়ে আসলে তাহেরা খাতুন রেখা (১৭) নামের কলেজ পড়ুয়া মেয়েও তাদের নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা।

ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল রবিবার (১৭ নভেম্বর) সকাল নয়টার দিকে। নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ উপজেলার ধলবাড়ীয়া ইউনিয়নের বলারহুলা গ্রামের দিনমজুর আব্দুর রউফের স্ত্রী।
আহত মাহমুদা খাতুন শিলু জানান, দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল একই এলাকার হামিদ সরদারের ছেলে বারেক সরদার(৪৫) এর সাথে। গত শুক্রবার সকালে সে তাদের জমিতে ঘেরা দিতে গেলে বারেক সরদার তাকে বাঁধা প্রদান করে।

এসময় দুজনের মধ্যে বাকবিতন্ডতার এক পর্যায়ে বারেক সরদার তার ভাই মহাসিন এবং হানিফ সরদার তাকে বেধড়ক মারপিট আরম্ভ করে। এসময় বাড়ীতে থাকা তার একমাত্র মেয়ে রেখা তাকে উদ্ধার করতে আসলে তাকেও বেধড়ক মারপিট করে তারা। এখানেই ক্ষান্ত নয় তারা তিন ভাই শিলুকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত অবস্থায় পুকুরের পানিতে চুপিয়ে ধরে। এরপর পুকুর থেকে উপরে নিয়ে এসে তার গলায় ও পায়ে রশি দিয়ে বারেক সরদারের বাড়ীর উঠানের কদবেল গাছের সাথে বেঁধে রাখে। পরবর্তীতে স্থানীয় ইউপি সদস্য ছত্তার তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায় বলে তিনি জানান। বর্তমানে তিনি কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।

স্থানীয় ফতেমা,জাহানারাসহ অনেকে জানান, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের কারণে শুক্রবার শিলু ও বারেকের সাথে ঝগড়া হয়। শিলুর স্বামী বাড়িতে না থাকার সুযোগে তাকে প্রচণ্ড মারপিট করে। এবং বারেকেরা তিন ভাই মারধরের পরে গাছের সাথে বেঁধে রাখে।

স্থানীয় বীরেশ্বর জানান, শিলুকে গাছের সাথে বেঁধে রেখে বারেক রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় তাকে বলে জমিতে ঘেরা দিতে গিয়েছিল শিলু। এজন্য তাকে মেরে বাড়ীতে বেঁধে রেখে এসেছে। এই কথা শুনে তাদের বাড়ীতে যেয়ে আমি দেখি শিলুর গলায় ও হাতে দড়ি দিয়ে কদবেল গাছের সাথে বেঁধে রাখা হয়েছে।

এবিষয়ে জানার জন্য বারেক সরদারের বাড়ীতে যেয়েও তার দেখা পাওয়া যায়নি। তবে তার মা মোমেনা বেগম বলেন রাগের মাথায় তার ছেলে শিলুকে মারধর করে বেঁধে রেখ ছিল।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ছত্তার আলী জানান,জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের খবর শুনে তিনি ঘটনা স্থলে যান। সেখানে যেয়ে আহত অবস্থায় শিলুকে হামিদ সরদারের কদবেল গাছের পাশ থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীতে তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয় বলে তিনি জানান।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হুসেন বলেন, এবিষয়ে মেয়ের মা হাসিনা বিবি বাদী হয়ে সোমবার (১৮ নভেম্বর) থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। তারই প্রেক্ষিতে ছালমা খাতুন নামের এক আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া বাকী আসামীদের আটক করার জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।

Check Also

সিলেটে গৃহবধু ধর্ষণ, প্রধান আসামি সাইফুরসহ দুইজন গ্রেপ্তার

ক্রাইমবাতা রিপোট:  সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গৃহবধু গণ ধর্ষণের ঘটনায় প্রধান আসামি সাইফুর ও তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *