এ পর্যন্ত ৫ মুসল্লীর মৃত্যু টঙ্গী বিশ্ব ইজতিমা ময়দানে জুমা আদায় ॥ কাল আখেরী মোনাজাত

গাজী খলিলুর রহমান ও মোঃ রেজাউল বারী বাবুল টঙ্গী থেকে : রাজধানীর অদূরে টঙ্গীর তুরাগ নদের তীরে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে আম বয়ানের মধ্য দিয়ে ৫৫তম বিশ্ব ইজতিমার প্রথম পর্ব আ’ম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে। এর আগে বাদ ফজর উর্দ্দুতে আ’ম বয়ান শুরু করেন পাকিস্তানের মাওলানা ওবায়দুল্লাহ খুরশিদ। তা বাংলায় তরজমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল মতিন।
গতকাল শুক্রবার প্রথম দিনে লাখো মুসল্লি একসঙ্গে জুমার নামাজ আদায় করেছেন। নিয়মিত তাবলিগ জামাতের জামাতবন্দী মুসল্লী ছাড়াও ঢাকা-গাজীপুর, উত্তরা, সাভার, নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকার লাখ লাখ মুসল্লী ইজতেমা ময়দানে অনুষ্ঠিত জুম্মার নামাজে অংশ নেন। ইজতেমা ময়দানে দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজ শুরু হয় ১টা ৩০ মিনিটে। ইমামতি করেন ঢাকা রাজধানীর কাকরাইল মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ জুবায়ের। জুম্মার নামাজে শরিক হন ধর্মপ্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. আনোয়ার হোসেন, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম, গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. আজমত উল্লা খান।
গতকাল শুক্রবার বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে উত্তরের হিমেল হাওয়া আর কনকনে শীত ও ঘনকুয়াশা উপেক্ষা করে লাখো লাখো মুসল্লী ছয় উসুলে বয়ান শুনেন এবং তাশকিল, তাসবিহ-তাহলিলে অংশ নেন। সকাল থেকেই রাজধানীসহ আশপাশের এলাকা থেকে ইজতেমা মাঠের দিকে মানুষের ঢল নামে। দুপুর ১২টার দিকে ইজতেমা মাঠ উপচে আশপাশের খোলা জায়গাসহ সব স্থান জনসমুদ্রে পরিণত হয়। ঠাই ছিল না তিলধারণের। বাস, ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহনে করে মুসল্লিরা ইজতেমা মাঠের দিকে ছুটে আসেন জুমার নামাজ আদায় করার জন্য। মাঠে স্থান না পেয়ে মুসল্লিরা মহাসড়ক ও অলি-গলিসহ যে যেখানে পেরেছেন হোগলা পাটি, চটের বস্তা, খবরের কাগজ বিছিয়ে জুমার নামাজে শরিক হয়েছেন। ফলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যানবাহন চলাচল সাময়িক বন্ধ হয়ে যায়।
বিদেশী মুসল্লিদের অংশগ্রহণ
ইজতেমার প্রথম পর্বে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব-আমিরাত, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, চাঁদ, ইথিওপিয়া, ফ্রান্স, জার্মানী, ভারত, পাকিস্থান, রাশিয়া, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণআফ্রিকা, স্পেন, সুইজারল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, কাজাখাস্তান, খিরগিস্থান, মালয়েশিয়া, মরক্কো, নেপাল, কেনিয়া, কুয়েত, কাতার, বাহরাইন, জর্দান, দুবাইসহ বিশ্বের ৫১টি দেশের প্রায় ১হাজার ৫শ’ বিদেশী মুসল্লি ইজতেমায় অংশ নিয়েছেন। বিভিন্ন ভাষা-ভাষী ও মহাদেশ অনুসারে ইজতেমা ময়দানে বিদেশী মেহমানদের ভিন্ন ভিন্ন তাবু নির্মাণ করা হয়েছে। সেখানে তাদের জন্য প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
সার্বিক কার্যক্রম মনিটরিং
বিশ্ব ইজতেমা ২০২০ এর সার্বিক কার্যক্রম মনিটরিং করার জন্য ৮টি কন্ট্রোল রুম, ১৫টি তোড়ন, পুলিশ বিভাগের জন্য ১৫টি ওয়াচ টাওয়ার, র‌্যাবের জন্য ১০টি স্থাপন করা হয়েছে। নিরাপত্তায় নিয়োজিত বাহিনীর জন্য ৪০০টি অস্থায়ী টয়লেট নির্মাণ করা হয়েছে। ওযু, গোসল, পয়:নিষ্কাশন, সুপেয় পানির জন্য ১৩টি গভীর নলকূপ ৩ কোটি ৫৪ লক্ষ গেলন পানি প্রতিদিন সরবরাহ করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ৬০০ ড্রাম বিলিচিং পাউটার, ২হাজার লিটার কেরসিন, ৬০টি গার্বেস ট্রাক, বর্জ্য অপসারণ করবে। ৬০টি ফগার মেশিন মশক নিধন করবে। নদী ব্রীজের ৩টি নিরাপত্তা বেষ্ট্রনী নির্মাণ করা হয়েছে।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা
বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে নিয়োজিত ভ্রাম্যমান আদালত সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত ইজতেমাস্থল ও আশে-পাশের খাবারের দোকান ও হোটেলে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হচ্ছে। অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে পচা-বাসী খাদ্য পরিবেশন ও ভেজাল খাদ্য বিক্রয়ের অভিযোগে বিভিন্ন খাবারের দোকান ও হোটেল মালিকদের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলাসহ জরিমানা আদায় করা হয়।
৫ মুসল্লির মৃত্যু
টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় বৃহস্পতিবার থেকে গতকাল শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত ৫ মুসল্লি মারা গেছেন। তাদের সকলেই বার্ধক্যজনিত কারনে মৃত্যু বরন করেছেন। গতকাল শুক্রবার ভোরে সিরাজগঞ্জ জেলার কাজীপুর থানার পাটাগ্রামের মৃত আমির শেখের ছেলে খোকা মিয়া (৬০), চট্রগ্রাম জেলার কটিয়া থানা এলাকার খইগ্রামের গোড়া মিয়া ছেলে মোহাম্মদ আলী (৭০) ও নওগাঁ জেলার আত্রাই থানার পাইকরা বড়বাড়ি গ্রামের মৃত সোলাইমানের ছেলে শহীদুল ইসলাম (৫৫) নামে তিন মুসল্লির মারা গেছেন। এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাতে গোপালগঞ্জ জেলার কোটালি পাড়া থানার লাখিরপাড় গ্রামের মৃত হাসেম আলীর ছেলে এয়াকুব শিকদার (৭৫) মারা যান, রাজশাহী জেলার, বনকিশোর গ্রামে আব্দুর রাজ্জাক (৭০) ইজতেমা ময়দানে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বিকাল ৪টায় মারা যান।
গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে এক মুসল্লী দগ্ধ
গতকাল শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর ইজতেমা ময়দানে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে মো: শহীদ (৭৫) নামে এক মুসল্লী দগ্ধ হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সে রাজধানী ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকার বাসিন্দা।
ফ্রি চিকিৎসা সেবা
টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে শুক্রবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত প্রায় শতাধিক মুসল্লি বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন। এদের মধ্যে বেশিরভাগ মুসল্লি ঠান্ডা, সর্দি-কাশি, শ্বাসকষ্ট, পেটের পীড়াজনিত কারণে চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ওই হাসপাতালের (ভারপ্রাপ্ত) আবাসিক চিকিৎসক ডা. মাসুদ রানা। এছাড়া ইজতেমাস্থলের পার্শ্ববর্তী ফ্রি-মেডিক্যাল ক্যাম্পগুলোতে কয়েক হাজার মুসল্লি বিনামূল্যে ওষুধ সংগ্রহ ও প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। এদের মধ্যে টঙ্গী ওষুধ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি,হামর্দদ ল্যাবরেটরিজ, ইবনে সিনা মুসল্লীদের চিকিৎসা সেবা দিয়েছেন। এছাড়া টঙ্গী প্রেসক্লাবের মিডিয়া সেন্টার স্থাপন, গাজীপুরস্থ চাঁদপুর জেলা ঐক্য ফোরামের ফ্রি চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়েছে। গাজীপুরস্থ চাঁদপুর জেলা ঐক্য ফোরামের আহ্বায়ক খোরশেদ আলম তালুকদারের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব আলমগীর গাজীর পরিচালনায় ফ্রি চিকিৎসা সেবা ঔষধ বিতরণ উদ্বোধন করেন টঙ্গীস্থ বৃহত্তর কুমিল্লা সমন্বয় পরিষদের কার্যকরি সভাপতি, জরিফ আহমেদ মন্টু ডিলার।
আখেরী মোনাজাতের দিন
আগামী ১২ জানুয়ারী প্রথম পর্বের আখেরী মোনাজাতের দিন ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভোগড়া-চৌরাস্তা হতে টঙ্গী পর্যন্ত কালীগঞ্জ-টঙ্গী সড়কের মাজুখান ব্রীজ হতে স্টেশন রোড ওভারব্রীজ পর্যন্ত এবং কামারপাড়া ব্রীজ হতে মন্নু টেক্সটাইল মিলগেট পর্যন্ত সড়কপথ বন্ধ থাকবে বলে জানান গাজীপুর জেলা ট্রাফিক বিভাগ।

Check Also

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আইসিইউতে

ক্রাইমবার্তা রিপোট : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রাজধানীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *