সাতক্ষীরায় প্রধান বক্তাকে মারপিটের ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল: কি ঘটে ছিল ঐ দিন

আবু সাইদ বিশ্বাস:ক্রাইমবাতা রিপোর্ট: সাতক্ষীরা: সাতক্ষীরায় একটি ইসলামী মাহফিলে প্রধান বক্তাকে মার পিটের ঘটনায় দেশ ব্যাপি তোড়পাড় শুরু হয়েছে। মারপিটের ভিডিও ইত্যোমধ্যে সামাজিক যেগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। মাহফিলে আমন্ত্রিত প্রধান বক্তাকে জনসম্মুখে গণপিটুনি দেয়ার ঘটনা একদিকে যেমন দেশে আলেম সমাজের মাঝে বিরুপ প্রভাব পড়েছে অন্যদিকে চিত্র জগতের কলা কৌশলিদের মাঝে ও নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাটপার থেকে শুরু করে যে যার মত করে খারাপ মন্তব্য করেছে।
আসলে সে দিন কি ঘটে ছিল:
সাতক্ষীরা শহর থেকে ৭ কিলৈামিটার দূরে সদরের উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়ন। এই ইউনিয়নের বালিথা ঈদগাহ মাঠের পশ্চিম পাশ্বে আবুল ফারহা সিদ্দিকীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা। এখানে গত ১২ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার ২৫ তম বাষিক ওয়াজ মাহফিলের দ্বিতীয় দিনের বয়ান চলছিল। এদিন মাহফিলে চলচিত্র জগতের কিংবদন্তি নায়ক ওমর সানি ও রুবেলের থাকার কথা ছিল। অসুস্থার কারণে তারা না আসতে পারায় মাহফিলে আসেন নায়ক মেহেদী হাসান মেহেদী ও ভিলেন আমির সিরাজী। মাহফিলের এক পর্যায়ে প্রধান বক্তর ওয়াজ শুরু করেন। তার ওয়াজ শুনে অনুষ্ঠানে অতিথিসহ মাহফিলে আগতদের মনে সন্ধেহের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে স্টেজে বসে থাকা অতিথিরা কানা ঘুষা করতে থাকে। প্রধান বক্তার আলোচনার এক পর্যায়ে স্টেজে বসা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সামছুর রহমান হুজুরের আসল পরিচয় জানাতে চাই। প্রধান বক্তার সাথে কথা বলার একপর্যায়ে তিনি হুজুরের মুখের মাক্স ধরে টান দেন। এসময় হুজুরের মুখে দাঁড়ি না দেখে স্টেজে থাকা এক মুরুব্বি তাকে চড় থাপড় মারতে থাকেন। এমনকি চেয়ারম্যান নিজেও তাকে আঘাত করেন। এসময় যে যার মত করে তাকে মেরে স্টেজ থেকে বের করে দেন। স্টেজে দেখা যায় মাত্র একজন ব্যক্তি হুজরকে আতœরক্ষা করার চেষ্টা করেন।
এর পর স্টেজে নায়ক মেহেদী হাসান ও ভিলেন আমির সিরাজীকে উঠানো হয়। পরে চেয়ারম্যানের নির্দেশে মাহফিলে আগতদের উত্তেজনা বন্ধ করা হয়।
মাহফিলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সামছুর রহমান বলেন, আমাদের এলাকায় ৪০/৫০টি ওয়াজ মাহফিল হয়। আমিও ওয়াজ করতে পারি। আমি প্রতিদিন রাত ১টা পর্যন্ত ফেসবুক চালায়। ৬শ টাকা দিয়ে একটি মোবাইল কিনেছি। হাফেজ মাওলনা আবুল কালাম আজাদের ওয়াজ আমি শুনেছি। আমি তাকে চিনি। কিন্তু আপনিতো সেই বক্তা না। তিনি বলেন আমার আগেই সন্ধেহে হয়ে ছিল। )
এর পর কথা বলেন নায়ক মেহেদী হাসান। তিনি বলেন, সিনেমার লোকেরা সব চেয়ে বেশি নামাজ পড়ে। তারা আল্লাহর ইবাদাত করে। সিনেমা আমাদের পেশা কিন্তু আমরা সব চেয়ে বেশি নামাজ পড়ি,ইবাদাত করি। পরে
উত্তেজিত জনতাকে ঢা-া করতে ভিলেন আমির সিরাজী বয়ান শুরু করেন। বলেন,মাহফিলের প্রধান বক্ত মো: আবুল কালাম শিপনকে মারপিট করা ঠিক হয়নি। সে একজন মেকাপম্যান, ভালো একজন এডিটর ম্যান হাফেজসহ ১৭ গুণের অধীকারী। তাকে মাহফিলে দাওয়াত দেয়া হয়ে ছিল। কিন্তু ব্যানারে ভুল করে আবুল কালাম শিপন এর পরিবর্তে আবুল কালাম আজাদ লিখে ফেলেছে। এটা প্রিন্ট জনিত ভুল হয়েছে। আপনারা তার বক্তব্য শুনলে ভাল লাগবে। এসময় চেয়ারম্যানসহ অন্যরা না না করে প্রতিবাদ জানান।
প্রধান বক্তা আবুল কালাম শিপন জানান, সাতক্ষীরার এ মাহফিলে তাকে প্রধান বক্তা হিসেবে আমন্ত্রন জানানো হয়। তিনি নিজের ইচ্ছায় আসেনি। তাকে আয়োজক কমিটি দাওয়াত দিয়ে এনেছে।
স্থানীয়দের অভিযোগ তাহলে এত বড় মাহফিলের আয়োজক কমিটি কারা। সূত্র জানায়, প্রতিবছর এ মাহফিলের আয়োজন করেন আবুল ফারহা সিদ্দিকীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার পরিচালক মোঃ মজিবুর রহমানের স্ত্রী সালমা খাতুন (বেদেনী)। তিনি পেশায় একজন কবিরাজ। সরকারের উচ্ছপর্যায়ে রয়েছে তার ধরা ছুয়া। তিনি একজন বড় মাপের গুনিন। অনেকে তার ক্ষপ্পরে পড়ে সহায় সম্পত্তি হরিয়েছে। এলাকার অনেকে তাকে খুব ভাল মানুষ আবার অনেকে তাকে ভয়ংকার মানুষ হিসেবে চেনে। তার নিকট জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদককে জানান ভুল বোঝা বুঝির কারণে ব্যানারে প্রিন্ট জনিত কারণে অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে।  পূর্ণজ্ঞ ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

kopotakkho24

ভাল লাগলে আমাদের চ্যানেল subscribes  করবেন

Check Also

কে সঠিক : নূরুল হুদা, না মাহবুব তালুকদার?

ড. বদিউল আলম মজুমদার : ‘জাতীয় ভোটার দিবস’ উপলক্ষ্যে ২ মার্চ ২০২১ আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২১*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।