professional background images hd-1

দেশে সিনেমা হলের সংখ্যা কমে মাহফিলের সংখ্যা বাড়ছে: নকল বক্তা সেজে ওয়াজ করায় বক্তাকে মারপিট: ভিডিও ভাইরাল ( সম্পূর্ণ ভিডিও)

আবু সাইদ বিশ্বাস: ক্রাইমবাতা রিপোট: সাতক্ষীরা: যুবসমাজে ইসলাম ধর্ম জানার আগ্রহ বাড়ছে। বিশ্বব্যাপি মু’সলিম জনসংখ্যা বাড়ছে তুলনা মূলক বেশি। দিন দিন ইস’লাম ধর্মেরদিকে ঝুঁকছেন বিশ্বের মানুষ। আর তাই আগামী ৫০ বছরের মধ্যে বিশ্বের মোট জনসংখ্যার সবচেয়ে বেশি হবে মু’সলিম। যার প্রভাব পড়েছে বাংদেশের সিনেমা জগতে। যারা এক সময় সিনেমা করতে আগ্রহী ছিল এখন তারা ইসলাম চর্চায় আগ্রহী হচ্ছে। ফলে দেশ সিনেমা হলের সংখ্যা ব্যাপক হারে হ্রাস পাচ্ছে।
বছর দুয়েক আগে বাংলাদেশে চালু সিনেমা হলের সংখ্যা ছিল প্রায় ২৬০টি। বিশেষ দিনে সেই সংখ্যা বেড়ে ৩০০টি অতিক্রম করত। কিন্তু চলতি বছরে এসে দেশে সিনেমা হলের সংখ্যা কমে সচল সিনেমা হলের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে মাত্র ৬২টি। প্রদর্শক সমিতির তথ্যমতে, সাদাকালো যুগ পরবর্তী নব্বই দশকে দেশে হলের সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৪৩৫টির মতো। বর্তমানে সিনেমা হল কমতে কমতে দেশে সিনেমা হলের সংখ্যা ৬২টি তে দাঁড়িয়েছে! দেশে ২৫টি জেলায় এখন আর কোনও সিনেমা হল নেই। জেলাগুলোর মধ্যে মুন্সিগঞ্জ, নরসিংদী, পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম ,লালমনিরহাট, গাইবান্ধা, নাটোর, নড়াইল, ব্রাক্ষণবাড়িয়া, বরগুনা, চুয়াডাঙ্গা, খাগড়াছড়ি, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, কক্সবাজার, বান্দরবানসহ আরও কয়েকটি জেলায় কোনও সচল হল নেই।

প্রযোজক, পরিবেশক ও প্রদর্শক সমিতির কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, ২০০০ সাল পর্যন্ত দেশের প্রতিটি জেলায় বিশের অধিক সিনেমা হল ছিল। কিন্তু এরপর থেকে দেশে হল সংখ্যা কমতে শুরু করে এখন শূন্যের কোটায়। সিনেমা হল সংখ্যার অন্যতম কারণ হিসেবে অনেকে উল্লেখ করেছেন, সিনেমার গল্প, চলচ্চিত্র শিল্পী সংকটসহ চলচ্চিত্রের বিভাজন ও সিনেমা নির্মাণ কম হওয়ার কারণে হল সংখ্যা কমে গেছে। সিনেমা হলে নতুন কোনও সিনেমা মুক্তি দিতে না পারায় নতুন হল মালিকরা হল ক্রমশ বন্ধ করে দিয়ে মার্কেট নির্মাণ করেছেন। সিনেমা বিশেজ্ঞরা বলছে, দেশে আকাশ ছুয়া সাংস্কৃকিত, অশ্লীল ভিডিও প্রদর্শন, ইউটিউভসহ সরকারী পৃষ্টপোষকতার কারণে দেশে সিনেমার প্রতি যুবসমাজের আগ্রহ কমেছে। পাশাপাশি মানুষ ইসলামের প্রতি আগ্রহ বাড়ার কারণে দেশে মাহফিলের সংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে। তাদের মতে দেশে যতমাহফিলের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে ততই সিনেমাহলের সংখ্যা কমছে।
ইসলামী চিন্তাবিদরা বলছে,যুবসমাজ ইসলামের দিকে আকৃষ্ট হচ্ছে। ফলে দেশে মূল্যবোধে সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মানুষ বেশি বেশি নামাজি হচ্ছে। এমনকি সিনেমা পাড়াতেও এর প্রভাব পড়েছে। ফলে সিনেমা থেকে দর্শক মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন।’

বাংলাদেশের সিনেমা এখন লাইফ সাপোর্টে আছে। আর দিন দিন যদি হল সংখ্যা কমতে থাকে তাহলে হয়তো এ দেশে আর সিনেমা হলেই থাকবে না। সংকটে পড়বে সিনেমা ইন্ডাষ্ট্রি।’

পরিচালক সমিতির সভাপতি বলেন, ‘এখন সিনেমা হল থেকে হল মালিকরা লাভবান হতে পারছেন না। তাই অনেকে হল ভেঙে মার্কেট বানাচ্ছেন বা অন্য ব্যবসা করছেন। তাই হল যেকোনো মূল্যেই হোক হল টিকিয়ে রাখতে হবে।’

ঢাকাই সিনেমায় সালমান শাহ, শাকিব খান, শাকিল খান ও মৌসুমিকে ঢাকাই চলচ্চিত্রে নিয়ে আসছিলেন সোহানুর রহমান সোহান। তিনি অবশ্য জানালেন ভিন্নকথা। তিনি বলেন, আমাদের কয়েকটি ধাপ অতিক্রম করতে পারলে সিনেমা হলের সংখ্যা কমার চেয়ে বাড়বে। কারণ সিনেমা ভালো মানের নির্মাণ করতে হলে নায়ক-নায়িকা অব্যশই নতুন নিতে হবে। দর্শক এক নায়ককে সবসময় দেখতে চায় না। তাছাড়া সিনেমা বানানোর জন্য গল্পের দিকে বিশেষ গুরত্ব দিতে হবে। এগুলো নানা সংকটে আমাদের সিনেমা ইন্ডাষ্ট্রি আজ আইসিইউতে।

সিনেমা হলগুলো বন্ধ হওয়ার পেছনের কারণ হিসেবে সিনেমা সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ভালো সিনেমা নির্মাণ না হওয়ার কারণে দিনদিন সিনেমা হল কমে যাচ্ছে। কেউ আবার বলছেন, হল নেই বলেই সিনেমার ব্যবসা খারাপ। আইসিইউ থেকে বাংলা চলচ্চিত্রের সংকট কাটিয়ে তুলতে সরকারিভাবেও নেওয়া হয়েছে পদক্ষেপ। করোনা কালিন সময়ে সরকার সিনেমায় জড়িতদের দশ কোটি টাকার অনুদান দিয়েছে। পাশাপাশি চলচ্চিত্রের হল বাঁচাতেও দেশে সিনেপ্লেক্স নির্মাণের সরকার ১০০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প ঘোষণা করেছে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে। শুধু সাতক্ষীরা জেলাতে ১৩টি সিনেমা হলের পরিবর্তে এখন আছে মাত্র দুটি। শহরের লাবনি ও সঙ্গীতা সিনেমাহল। তাও আবার চলছে খুড়িয়ে খুড়িয়ে।

যুক্তরাষ্ট্রের পিউ রিসার্চ সেন্টার (পিআরসি) বলেছে, বিশ্বে ইসলাম সবচেয়ে জনপ্রিয় ধর্ম হয়ে উঠছে। ইসলাম হচ্ছে সবচেয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়া ধর্ম। পিআরসি-র গবেষণায় বলা হয়, আগামী ২০৭০ সালের পর বিশ্বে ইসলাম হবে সবচেয়ে জনপ্রিয় ধর্ম। এর আগে বিশ্বে ২০৫০ সাল নাগাদ মুসলিম জনসংখ্যা হবে খ্রিস্টানদের প্রায় সমান। ইসলাম হবে এ দুনিয়ার সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল ধর্মবিশ্বাস। গবেষণায় বলা হয়, ২০৫০ সালের মধ্যে ভারতে মুসলমানদের সংখ্যা মুসলিম দেশ হিসেবে পরিচিত ইন্দোনেশিয়াকেও ছাড়িয়ে যাবে। মুসলিম জনসংখ্যার দিক দিয়ে ভারত ইন্দোনেশিয়াকে ছাড়িয়ে গেলেও দেশে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরাই সংখ্যাগরিষ্ঠ থাকবে।
সমীক্ষার তথ্যে দেখা যায়, ইসলাম ধর্মে বিশ্বাসীদের সংখ্যা ২০৫০ সাল নাগাদ গিয়ে দাঁড়াবে ২৭৬ কোটিতে। ওই সময় মুসলমানরা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশ হবে। ২০৫০ সালে বিশ্বের মোট জনসংখ্যা ৯শ’ কোটি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ২০৫০ সালে মুসলমানদের সংখ্যা হবে ২৮০ কোটি যা মোট জনসংখ্যার ৩০ শতাংশ এবং খ্রিস্টানদের সংখ্যা ২৯০ কোটি (মোট জনসংখ্যার ৩১ শতাংশ) গিয়ে দাঁড়াবে। যদি এই ধারা চলতে থাকে তাহলে ২০৭০ সালের পর বিশ্বে ইসলামই বেশি জনপ্রিয় ধর্ম হবে। ২০৫০ সালে ইউরোপের মোট জনসংখ্যার ১০ শতাংশ হবে মুসলিম যা ২০০৯ সালে ছিল ৫ দশমিক শতাংশ। অর্থাৎ ২০৫০ সালে প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৬ জনের বেশি হয় মুসলমান কিংবা খ্র্রিস্টান হবে। একই সময়ে ইউরোপে হিন্দুদের সংখ্যা দ্বিগুণ হবে।

যার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। শুধু মুসলিম সংখ্যা বৃদ্ধি নয় ইসলাম ধর্মীয় বিশ্বাসে মানুষের গুণগত মানও বৃদ্ধি পাবে। ফলে সিনেমা জগতেও এর প্রভাব পড়েছে।
সম্প্রতি সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়নের বালিথা ঈদগাহের পশ্চিম পাশ্বে আবুল ফারহা সিদ্দিকীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা ময়দানে গত শুক্রবার ১২ ফেব্রুয়ারী বাষিক ওয়াজ মাহফিলে প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন মো: আবুল কালাম শিপন। যে খানে ব্যানারে লেখা ছিল মো: আবুল কালাম আজাদ প্রধান বক্তার বয়ান দিবেন। একই মাহফিলে চিত্রজগতের খল নায়ক আমির সিরাজী বলেন, শিপন চিত্র জগতের একজন মেকাপম্যান, ভালো একজন এডিটর ম্যান,এবং হাফেজ।”আপনারা তার কথা শুনুন। কিন্তু উপুস্থি শ্রোতারা তার কথার সাথে কুরআনের মিল না থাকায় ভন্ড বক্তা বলে মারপিট করে। যা ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এলাকার সালমা বেগম নামে এক মহিলা এধরণের একটি অপমান জনক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বলে এলাকাবাসী জানান। ওয়াজ মাহফিলে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চিত্র জগতের মেহেদী হাসান মেহেদী।

kopotakkho24    ভাল লাগলে আমাদের চ্যানেল subscribes  করবেন

Check Also

কে সঠিক : নূরুল হুদা, না মাহবুব তালুকদার?

ড. বদিউল আলম মজুমদার : ‘জাতীয় ভোটার দিবস’ উপলক্ষ্যে ২ মার্চ ২০২১ আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২১*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।