অভয়নগরে গাজীপুর পীর সাহেবজাদার ইন্তেকালে শোক

সব্যসাচী বিশ্বাস (অভয়নগর) যশোর:

যশোরের অভয়নগর উপজেলার গাজীপুর পীর কেবলার মেঝ সাহবজাদা মো. নুরুজ্জামান ১৬ জানুয়ারি রবিবার দুপুরে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহী….রাজিউন)।

পীর সাহেবজাদা নুরুজ্জামান এর ইন্তেকালে যশোরসহ দক্ষিনাঞ্চলের আলেম ওলামা, ছাত্র শিক্ষকসহ হাজার হাজার ভক্ত মুরিদ ও স্থানীয় নানা মহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

রবিবার বাদ এশা মরহুম মো. নুরুজ্জামান সাহেবের জানাজা সালাত গাজীপুর রউফিয়া কামিল মাদরাসা প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়।
এ সময় যশোর খুলনা ও আশেপাশের এলাকার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, নওয়াপাড়া পীর কেবলার প্রতিনিধিসহ হাজারো ভক্ত মুরিদ উপস্থিত ছিলেন।

জানাজাপূর্ব সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন গাজীপুর রউফিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মুফতি মাওলানা মো. আব্দুল ওয়াদুদ, উপাধ্যক্ষ মুহাদ্দিস মাওলানা আনোয়ারুল ইসলাম ও গাজীপুর পীর সাহেবজাদা
মোস্তফা কামাল। জানাজা সালাতে ইমামতি করেন নওয়াপাড়া পীর কেবলার প্রতিনিধি মুফতি বশির আহমেদ।

মরহুমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন আলেম ওলামা, পীর মাশায়েখ, শিক্ষক, রাজনীতিবীদ, সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গসহ অসংখ্য ভক্ত মুরিদ। শোক জানিয়েছেন, যশোরের অভয়নগর উপজেলার সাহিত্য সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘ভৈরব সংস্কৃতি কেন্দ্র’র পরিচালক ও সদস্যবৃন্দ।

আরও সমবেদনা জানিয়েছেন অভয়নগরের ভৈরব উত্তর জনপদের সাংবাদিকদের সংগঠন ভৈরব-চিত্রা রিপোর্টার্স ইউনিটি, সিংগাড়ী আঞ্চলিক গণগ্রন্থাগার ও অভয়নগর সাহিত্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ।

ভৈরব সংস্কৃতি কেন্দ্র’র সভাপতি ও রিপোর্টারস ইউনিটির উপদেষ্টা নাট্যকার হাফিজ আকুঞ্জি, সংস্কৃতি কেন্দ্রর সহ সভাপতি এবং রিপোর্টারস ইউনিটির সভাপতি শিক্ষক সাংবাদিক আমিনুর রহমান, সংস্কৃতি কেন্দ্রর সাধারণ সম্পাদক শিল্পী ও সাংবাদিক সব্যসাচী বিশ্বাস, নির্বাহী সম্পাদক কবি বিলাল মাহিনী, যুগ্ম সম্পাদক মেহেদী হাসান ইরান, কার্যনির্বাহী সদস্য কবিরুল ইসলাম, মাস্টার বাবলুর রহমান, রবিউল ইসলাম, জসীম উদ্দিন বাচ্চু, প্রমুখ পরিচালকবৃন্দ শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন।

এছাড়াও অভয়নগর সাহিত্য পরিষদের সভাপতি কবি ও সাংবাদিক অধ্যক্ষ খায়রুল বাসার, সাধারণ সম্পাদক কবি নাইম নাজমুলসহ পরিষদ সদস্যবৃন্দ গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন।

Check Also

আলেম-ওলামাদের বিরুদ্ধে অবস্থান মূলত ইসলাম ও দেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া : ড. মাসুদ

ষিতে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান এবং পরে বেগম খালেদা জিয়া ছাড়া অন্য কেউ ভূমিকা রাখেননি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২১*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।