কলারোয়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্বামী-স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা কলারোয়ার ব্রজবাকসাতে মাছ চাষের পুকুরে বাচ্চাদের পানি ঘোলাতে নিষেধ করাকে কেন্দ্র করে স্বামীকে পিটিয়ে জখম ও নারীর হাত ভেঙ্গে দিলো এক দল প্রতিবেশী সন্ত্রাসী বাহিনী। এ বিষয়ে জীবন ও তার পরিবারের নিরাপত্তা পেতে ভুক্তভোগীর স্বামী মালেক ঘরামী বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন গতকাল দুপুরে উপজেলার ৯নং হেলাতলা ইউনিয়নের ব্রজবাকসা ঘরামি পাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, আমি মালেক ঘরামী দুপুরে আমার পুকুরে একদল বাচ্চারা খোলা করছিল এতে পুকুরে চাষ করা মাছ মরা যাওয়ার উপক্রম হচ্ছিল এসময় সকল বাচ্চা উঠে গেলেও তামিম হোসেন নামের একটি বাচ্চা না উঠলে একটি চড় মারায় সে কান্নাকাটি করে বাড়িতে যাই পরে বাচ্চার চাচা পার্শ্ববর্তী গনি ঘরামি মসজিদ থেকে বের হয়ে বাচ্চার বাবা গফুর ঘরামি ও জিয়ারুল ইসলামকে ডেকে আমাকে বেধড়ক মারপিট করতে থাকে। এসময় আমার স্ত্রী পাপিয়া খাতুন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসী বাহিনীরা তাকেও বেধড়ক মারধর করে হাত ভেঙে দেন। এমনকি তারা হিংস্র ভাবে আমার মেয়েকেও মারপিট করে। আমার স্ত্রী পাপিয়া খাতুন সে কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মহিলা ওয়ার্ডে চিকিৎসারত আছেন। সন্ত্রাসী বাহিনির হাত থেকে জীবনের নিরাপত্তা ন্যায় বিচার চেয়ে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট সহযোগিতা কামনা করেন। এ বিষয়ে কলারোয়া থানা অফিসার ইনচার্জ ভারপ্রাপ্ত ওসি নাসির উদ্দীন মৃধা জানায়, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি ঘটনার সত্যতা যাচাই করে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Check Also

আলেম-ওলামাদের বিরুদ্ধে অবস্থান মূলত ইসলাম ও দেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া : ড. মাসুদ

ষিতে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান এবং পরে বেগম খালেদা জিয়া ছাড়া অন্য কেউ ভূমিকা রাখেননি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২১*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।