ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়ছে ৬৩ জেলায় ॥ আরও ৪ জনের মৃত্যু

* আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজার ছাড়িয়েছে
* প্রতি মিনিটে ১ জন আক্রান্ত
* স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল
এইচ এম আকতার : ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা রোগের এবং বিস্তার উভয়ই বেড়েছে। দেশের ৬৪টি জেলার মধ্যে ৬৩টি জেলায় ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়েছে। গ্রাম গঞ্জেও ছড়িয়ে পড়ছে ডেঙ্গু। প্রত্যন্ত অঞ্চলে আক্রান্ত রোগী জেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কপ্লেক্সে ভর্তি হচ্ছে। ডেঙ্গু যে হারে বেড়েছে তার চেয়ে বেশি বেড়েছে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক। গতকালও সারা দেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে ১ হাজার ৩৩৫ জন। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজারে দাঁড়িয়েছে। প্রতি মিনিটে ১ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হচ্ছে। যা অতীতের সকল রেকর্ড ছাড়িয়েছে। গতকাল ডেঙ্গুতে মারা গেছে ৪ জন। এনিয়ে মৃত্যের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩১ জন। এ কারণে স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঈদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।
জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা মেডিকেলে মারা গেছেন ৩ রোগী। ঢাকার বাইরে আরও একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এদিকে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গতকাল মঙ্গলবার বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) আসলাম নামে এক রোগী মারা গেছে। সোমবারও সোহেল নামে আরেক রোগী ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। তাদের দু’জনের বাড়ি বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার নাসিরনগর এলাকায়। গ্রামের প্রতান্ত এলাকায় তাদের বসবাস।
এবার ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের হেলথ ইকোনিক্স ইউনিটের উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) ড. নুরুল আমিনের স্ত্রী ফারজানা হোসেন। সোমবার দিবাগত রাত ১ টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ঢামেকের সহকারী পরিচালক ডা. নাসির উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল মঙ্গলবার দুপুর নাগাদ গত ২৪ ঘণ্টায় আরও এক হাজার ৩৩৫ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি হয়েছেন ৯৭৪ জন।
নতুনদের নিয়ে এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৩৬৯ জন, যাদের আটজনের মৃত্যু হয়েছে বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। তবে অনুসন্ধানে ডেঙ্গুতে অন্তত ৩১ জনের মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে।
এবার বর্ষার শুরুতেই ঢাকায় মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বরের প্রাদুর্ভাব ঘটে, এখন বিভিন্ন জেলা থেকে আক্রান্তের খবর আসছে।
গতকাল মঙ্গলবার দেশের ৬৩টি জেলায় ডেঙ্গুরোগী শনাক্ত হওয়ার কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, যেখানে আগের দিনও ৫০ জেলায় ডেঙ্গু রোগীর তথ্য পাওয়ার কথা জানিয়েছিল তারা।
বিভিন্ন জেলায় আক্রান্তদের অনেকে ঢাকা থেকে রোগ নিয়ে গেছেন। তবে রাজধানীর বাইরেও এডিস মশার বিচরণ রয়েছে বলে স্থানীয় পর্যায়ে আক্রান্তের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না বিশেষজ্ঞরা। তাছাড়া ঢাকা থেকে এই রোগ নিয়ে যাওয়ায় সারা দেশেই তা ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তারা।
ডেঙ্গু নিয়ে নতুন করে যারা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ২২১ জন ভর্তি হয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে, বর্তমানে এখানে চিকিৎসাধীন আছেন ৬৭৯ জন ডেঙ্গু রোগী।
এরপর মিটফোর্ড হাসপাতালে নতুন ভর্তি ১০৫ ও চিকিৎসাধীন ২৯৯ জন, ঢাকা শিশু হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৪৮ ও চিকিৎসাধীন ১২১ জন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৬১ ও চিকিৎসাধীন ২৬৬ জন, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৪২ ও চিকিৎসাধীন ২১৬ জন, বারডেম হাসপাতালে নতুন ভর্তি ১৭ ও চিকিৎসাধীন ৫২ জন, বিএসএমএমইউতে নতুন ভর্তি ২৬ এবং চিকিৎসাধীন ৯৬ জন, পুলিশ হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৩৩ এবং চিকিৎসাধীন ১৩২ জন, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৬৩ এবং চিকিৎসাধীন ২৫৩ জন, বিজিবি হাসপাতালে নতুন ভর্তি দুই জন এবং চিকিৎসাধীন ৩০ জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নতুন ভর্তি ৯০ এবং মোট চিকিৎসাধীন আছেন ২৪৭ জন।
ঢাকা শহরের বাইরে ঢাকা বিভাগের জেলাগুলোতেই সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এসব জেলার হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু নিয়ে ভর্তি হয়েছেন ১০৪ জন, তাদের নিয়ে মোট চিকিৎসাধীন আছেন ১৯১ জন।
এরপর খুলনা বিভাগে নতুন ডেঙ্গু রোগী ৫৬ এবং মোট চিকিৎসাধীন ১৫১ জন, রাজশাহী বিভাগে নতুন ৫৬ জন এবং মোট চিকিৎসাধীন ১৯৮ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে নতুন ৫৫ জন এবং মোট চিকিৎসাধীন ১০৪ জন, সিলেট বিভাগে নতুন ৫৫ এবং মোট চিকিৎসাধীন ৭০ জন, রংপুর বিভাগে নতুন রোগী ২০ এবং মোট চিকিৎসাধীন ৮৩ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে নতুন রোগী নয়জন এবং মোট চিকিৎসাধীন ২৫ জন, বরিশাল বিভাগে নতুন শনাক্ত ছয়জন এবং মোট হাসপাতালে ভর্তি ২৫ জন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তালিকা অনুযায়ী, ময়মনসিংহ জেলা বাদে দেশের অন্য সব জেলায় ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। ডেঙ্গু রোগের চিকিৎসা কার্যক্রম তদারকিতে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক তার নিজের দপ্তরে ‘মিনিস্টার মনিটরিং সেল’ গঠন করেছেন।
এই সেল থেকে ডেঙ্গু রোগ সংক্রান্ত জনভোগান্তি নিরসনে এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চলমান কর্মকা- তদারকি করা হবে বলে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
এতে বলা হয়, ডেঙ্গু রোগ পরীক্ষার ফি সংক্রান্ত সরকারি নির্দেশনার লংঘন হলে তার অভিযোগ গ্রহণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে ‘মিনিস্টার মনিটরিং সেল’। এই সেলের আওতায় ডেঙ্গু নিয়ে যে কোনো অনিয়ম সম্পর্কে অভিযোগ জানাতে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে।
এর আগে সোমবার বিকালে মন্ত্রণালয়ের এক সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ডেঙ্গু ও বন্যাজনিত কারণে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।
এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্তের লক্ষণ ও উপসর্গ পাল্টে আরও মারাত্মক হয়েছে। কারও জ্বর হলে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যাওয়া, ডেঙ্গু ধরা পড়লে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া এবং এমনকি রোগ সারার পরেও সজাগ থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।
মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গু বাংলাদেশে প্রথম দেখা দেয় ২০০০ সালে, সে সময় এই রোগে মারা যান ৯৩ জন। তিন বছর পর থেকে ডেঙ্গুতে মৃত্যুর হার কমতে থাকে এবং কয়েক বছর এতে মৃত্যু শূন্যের কোটায় নেমে আসে
তবে গত বছর আবার ব্যাপকভাবে দেখা দেয় ডেঙ্গু, ১০ হাজার মানুষ আক্রান্ত হওয়ার পাশাপাশি ২৬ জনের মৃত্যু হয় সরকারি হিসাবে। আর এ বছর সরকারি তথ্য অনুযায়ী, সাত হাজার ৭৬৬ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন।
ডেঙ্গুর জীবাণুবাহী এডিস ইজিপ্টি মশা সাধারণত পরিষ্কার পানিতে জন্মায়। বাড়ির ভেতরেও বিভিন্ন উৎসে এডিস মশা জন্মায়। এছাড়া বিভিন্ন নির্মাণাধীন ভবনের জলাধার, লিফটের নিচে জমে থাকা পানি, ফুলের টব, টায়ার-টিউবসহ যেসব জায়গায় পানি জমে, সেগুলোই এডিস মশার বংশ বিস্তারের অনুকূল পরিবেশ তৈরি করে।
এদিকে জনপ্রিয় চলচ্চিত্র অভিনেতা আলমগীর ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। শনিবার জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর পরীক্ষা-নিরীক্ষায় ডেঙ্গু ধরা পড়ে।
গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন চিত্রনায়ক নিজেই। আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, এখন আগের চেয়ে সুস্থ আছি। আরো দুই-তিনদিন হাসপাতালে থাকতে হবে। সুস্থতার জন্য তিনি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।
অন্যদিকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান গতকাল মঙ্গলবার সকালে ডেঙ্গুর বিস্তার রোধ ও গুজবের প্রতিকারে এক মানববন্ধনের আয়োজন করেন। এ সময় তিনি অভিনেতা আলমগীরের সুস্থতার জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন।
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) শেখ মুজিবুর রহমান বলেছেন, ডেঙ্গু পরিস্থিতিতে আসন্ন ঈদের ছুটিতে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঢাকার বাইরে যেতে কঠোরভাবে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। এ ছাড়া স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঈদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ডেঙ্গু চিকিৎসায় চিকিৎসক স্বল্পতার জন্য যেসব চিকিৎসক ট্রেনিং এ আছেন তাদেরকে ট্রেনিং বাদ দিয়ে চিকিৎসাকেন্দ্রে চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে ডেঙ্গু প্রতিরোধ, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলা ও গুজব প্রতিরোধ-সংক্রান্ত একটি পর্যালোচনা সভা শেষে তিনি এ কথা বলেন।
ডেঙ্গু থেকে শিক্ষার্থীদের রক্ষা করতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সাময়িক বন্ধ রাখার দাবি জানিয়েছে অভিভাবক ফোরাম। একইসঙ্গে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের দিয়ে ক্যাম্পাস পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার প্রস্তাবও জানানো হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ডেঙ্গু প্রতিরোধে সব স্কুল-কলেজ-মাদরাসা-বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত ছাত্র-ছাত্রী এবং শিক্ষক-অভিভাবকদের দিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ক্লাসরুম, বাগান, অফিস, বাড়ি-ঘর-আঙ্গিনা, ডোবা-নালা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও জন সচেতনতা সৃষ্টিসহ ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলা করা প্রয়োজন।
অভিভাবকদের সংগঠন অভিভাবক ঐক্য ফোরামের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মো. জিয়াউল কবির দুলু ও সাধারণ সম্পাদক মো. সেলিমউদ্দিনের স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে তারা বলেন, ডেঙ্গু এখন অনেকটা মহামারি আকার ধারণ করছে। সারাদেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি ভয়াবহ। সম্মিলিতভাবে তা মোকাবিলা করতে হবে। প্রয়োজনে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সাময়িক বন্ধ করে দিয়ে হলেও সব ছাত্র-ছাত্রী-শিক্ষক-অভিভাবককে ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় নিয়োজিত করতে হবে এবং ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারের সব কার্যক্রমকে সহায়তার আহ্বান জানান তারা।

Please follow and like us:

Check Also

ইছামতি নদীরপাড় কেটে পাইপ বসিয়ে মৎস্য পয়েন্ট তৈরি: ঝুঁকিতে বেড়িবাঁধ

নিজস্ব প্রতিনিধি: ইছামতি নদীর পাড় কেটে অবৈধভাবে পাইপ বসিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে মৎস্য রেণু প্রসেসিং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২৩*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।