সাতক্ষীরায় আরো ৭ জনসহ ৬০৬ জনের মৃত্যু,

সাতক্ষীরায় গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গে নিয়ে তিন নারীসহ অরো ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ (সামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। এদেও মধ্যে একজন করোনা আক্রান্ত হেয়ে মারা গেছে। এনিয়ে জেলায় ২৬ জুলাই সোমবার পর্যন্ত ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮৪ জন। আর উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ৫২২ জন।
করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তিরা হলেন, সাতক্ষীরা কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা গ্রামের ওহাব আলীর ছেলে আব্দুর রশিদ (৬৫), তালা উপজেলার পাঁচরখি গ্রামের গোলাম মোড়লের ছেলে আবছার আলী (৭০), একই উপজেলার শিরাসুনি গ্রামের নজরুল ইসলামের স্ত্রী আনোয়ারা খাতুন (৫০), সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুর গ্রামের গহর আলীর স্ত্রী জোহরা খাতুন (৬০), দেবহাটা উপজেলার পাুরলিয়া গ্রামের আজিজুর রহমানের স্ত্রী সুফিয়া খাতুন (৫৫) ও সদর উপজেলার চোমরখালী গ্রামের মৃত আলেক সরদারের ছেলে জোহর আলী (৭১)।
এছাড়া করোনা আক্রান্ত হয়ে সামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে কালিগঞ্জ উপজেলার মৃত শেখ আবেদ আলীর ছেলে নুরুজ্জামান (৫৫)।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্টসহ করোনার নানা উপসর্গ নিয়ে ও আক্রান্ত হয়ে মৃত ব্যক্তিরা গত ৪ জুলাই থেকে ২৬ জুলাইয়ের মধ্যে বিভিন্ন সময়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ (সামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি হন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৬ জুলাই ভোর রাত ১২ টা ১০ মিনিট থেকে রাত সাড়ে ১১টার মধ্যে বিভিন্ন সময়ে তাদের মৃত্যু হয়।
এদিকে ফের বেড়েছে করোনা সংক্রমনের হার। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আরো ৭৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ সময় ৪২২ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ। এর আগেরদিন শনাক্তের হার ছিল ২০ দশমিক ৮৯ শতাংশ।
সাতক্ষীরা সদর হাসপতালের মেডিকেল অফিসার ও জেলা করোনা বিষয়ক তথ্য কর্মকর্তা ডাঃ জয়ন্ত কুমার সরকার জানান, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় করোনা উপসর্গে মারা গেছে ৬ জন এবং করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ১ জন। জেলার বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কপ্লেক্সে র‌্যাপিড এন্টিজেন কীটে মোট ২২২ টি নমুনা পরীক্ষা করে ৭৯ জনের করোনা পজেটিভ সনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ।
তিনি আরো বলেন, সোমবার ২৬ জুলাই পর্যন্ত সাতক্ষীরায় মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫ হাজার ৪২০ জন। জেলায় মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ১৫৩ জন। বর্তমানে জেলায় করোনা রোগী রয়েছে ১১৮৩ জন। এরমধ্যে হাসপাতালে ভর্তি করোনা রোগীর সংখ্যা ২৪ জন। ভর্তি রোগীর মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ২১জন ও বেসরকারি হাসপাতালে ৩ জন রয়েছেন। বাড়িতে হোম আইসোলেশনে আছেন ১১৫৯ জন।
বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৪৩ জন। সরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ২৪৫জন। সরকারি ও বেসরকারি মিলে জেলায় মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২৪৫ জন। গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় সুস্থ হয়েছেন ৬৬ জন। জেলায় ২৬জুলাই পর্যন্ত ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে ৮৪ জন এবং উপসর্গে মারা গেছেন আরো ৫২২জন।

Please follow and like us:

Check Also

কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানকে অব্যাহতি

সনদ বাণিজ্য চক্রের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে স্ত্রী গ্রেফতার হওয়ার পর এবার বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২৩*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।