দেবহাটা উপজেলা কৃষি অফিসারের বদলীজনীত সংবর্ধনা প্রদান

দেবহাটা প্রতিনিধি: দেবহাটা উপজেলা কৃষি অফিসার শরীফ মোহাম্মদ তিতুমীর এর বদলীজনিত সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সাড়ে ১২টায় অফিসার্স ক্লাবের আয়োজনে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে এ বিদায় সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান এর সভাপতিত্বে সমাজসেবা কর্মকর্তা অধীর কুমার গাইনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন উপজেলা সিনিয়র মৎস্য অফিসার আলমগীর হোসেন, অতিরিক্ত কৃষি অফিসার শওকত ওসমান, উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী শোভন সরকার, মহিলা বিষয়ক অফিসার নাসরিন জাহান প্রমুখ।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দেবহাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি মীর খায়রুল আলম, সদ্য যোদানকৃত কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার জয়দেব কুমার পাল, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মইনুল ইসলাম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিউল বশার, একাডেমিক সুপারভাইজার মিজানুর রহমান, রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর মহিতোষ কর্মকার, আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা আসলতা খাতুন, পরিসংখ্যান অফিসার কাজী সিদরাতুল মুনতাহা, সহকারী প্রোগ্রামার ইমরান হোসেন, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের ব্যাবস্থাপক জয়া রানী, উপ-সহকারী প্রকৌশলী সাইফ হোসেন সহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাগন।
এদিকে, উপজেলা কৃষি অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারী ও বাংলাদেশ ফার্টিলাইজার এসোসিয়েশন ডিলারদের পক্ষ থেকে কৃষি কর্মকর্তা শরীফ মোহাম্মদ তিতুমীরকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত কৃষি অফিসার শওকত ওসমান, সদ্য যোদানকৃত কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার জয়দেব কুমার পাল, উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা সীমান্ত কুমার, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা যথাক্রমে মোস্তফা মোস্তাক আহম্মেদ, মনিরুল ইসলাম, আহম্মদ সাঈদ, আফজাল হোসেন, ইব্রাহিম খলিল, জাহিদ হোসেন, আলাউর রহমান সিদ্দিকী, আবুল কালাম আজাদ, ইউনুস আলীসহ সকল স্টাফবৃন্দ।
উল্লেখ্য যে, কৃষি কর্মকর্তা শরীফ মোহাম্মদ তিতুমীর ২০১৯ সালের ১৩ অক্টোবর দেবহাটায় যোগদান করেন। পরবর্তীতে কৃষকদের কল্যাণে বিভিন্ন উল্লেখ যোগ্য কাজ হাতে নিয়ে সম্পন্ন করেন। বিশেষ করে কৃষি সেবা ও সহযোগীতা সহজ করতে ৩য় তলা থেকে কৃষি অফিস নিচ তলায় নিয়ে আসেন তিনি। দেবহাটা উপজেলায় কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র না থাকায় নতুন ভবন স্থাপন, কৃষি বীজ ও উপকরণ সহ বিভিন্ন জিনিসপত্র সংরক্ষণের জন্য স্টোর রুম নির্মান, মোটরসাইকেল সেড নির্মান, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তার অফিস কক্ষ নির্মান, উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষ ও বিভিন্ন দপ্তরের অফিসকক্ষ সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে বিভিন্ন পরিবর্তন সহ অসংখ্য কাজ করে গেছেন তিনি। বিশেষ করে উপজেলার নোড়া-চারকুনিতে ক্লাইমেট-স্মার্ট প্রযুক্তির মাধ্যমে ১.২ কিলোমিটার নালা খননেন প্রায় ৪৫ বছর পর ৫শতাধীক বিঘা জমিতে ধানের আবাদ হয়েছে। স্থানীয় কৃষকরা চলতি মৌসুমে এর সুফল পেয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে। এছাড়া অপরিপক্ক আমে ক্যামিকেল মিশিয়ে পাঁকানো, নকল বীজ ও সার বিক্রি বন্ধে অগ্রনী ভ‚মিকা রাখেন তিনি। নতুনত্ব কাজ করার সুযোগ পাওয়ার জন্য গত ২০২৩ সাল থেকে স্ব উদ্যোগে বদলী হওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু অবশেষে ২০২৪ সালের এপ্রিল মাসে বদলির আদেশ পেয়ে ২ মে দেবহাটায় শেষ কর্মদিবস অতিবাহিত করেন। আগামী ৫ মে খুলনা বিভাগের ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকুন্ড উপজেলা কৃষি অফিসার হিসাবে যোগদান করবেন বলে জানা গেছে।

Please follow and like us:

Check Also

ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে প্রাণ গেল ১১ জনের

# আতংক কাটেনি উপকূলে # বৃষ্টি থাকবে বুধবার পর্যন্ত  # ২ কোটি ২২ লাখ গ্রাহকের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২৩*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।