তালার গোপালপুরের দেবনাথ পরিবার ৭০ বছর যাবৎ বৈশাখে তৃষ্ণার্ত পথচারীদের জল-খাবার খাইয়ে আসচ্ছেন

কামরুজ্জামান মিঠু: তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ঃ
বৈশাখের প্রখর রোদ্র, প্রচন্ড তাপদহ, ক্লান্ত তৃষ্ণার্থ পথিককে শীতল বটতলায় বসিয়ে জল-খাবারের ব্যবস্থা করছেন, তালা উপজেলার ইসলামকাটি ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের দেবনাথ পরিবার। প্রায় ৭০ বছর যাবৎ ৩ পূরুষ এই সেবা মূলক কাজটি করে আসছেন। তালা-পাটকেলঘাটা সড়কের তালা উপজেলার গোপালপুর আমবাগানের পাশেই বটতলা এলাকায় আসলেই চোখে পড়বে একটি সাইন বোর্ড তাতে লেখা “আসুন বসুন, পানি- জল গ্রহনে তৃষ্ণা নিবারণ করুন” পাশেই ছোট্ট দোকান ঘরের মতই একটি ছোট্ট বিশ্রাম ঘর থেকে পানি ও সামান্য ছোলা, চিনি ও শীতল পানি বিতরণ করা হচ্ছে।
গোপালপুর গ্রামের সুধন্য দেবনাথ ছেলে শংকর দেবনাথ বলেন, এই রাস্তা দিয়ে সাধারণ মানুষ একসময় পায়ে হেঁটে চলাচল করত। বৈশাখ মাসে তীব্র তাপদহ হতো। মানুষের খুব কষ্ট হতো হাটতে । ৭০ বছর আগে তার দাদু যতীন্দ্র দেবনাথ রাস্তার পাশে একটি বিশ্রাম ঘর তৈরি করেন। বৈশাখ এক মাসে ধরে তিনি সেই ঘরে ছোলা ও পানি দিয়ে মানুষকে তৃষ্ণা দূর করতেন আসেন।
তার দাদুর মৃত্যুর পর তার বাবা সুধান্য দেবনাথ মানুষের সেবার কাজটি করতেন। বাবার মুত্যুুর পর তার মা রেভা রানী দেবনাথ ও শংকর দেবনাথ প্রতিবছর পথচারীদের ছোলা ও পানি তৃষ্ণা দূর করার কাজটি করছেন।
সম্প্রতি সরেজমিনে দেখা যায়, গোপালপুর এলাকায় রাস্তার ধারে একটি বিশ্রাম ঘর। দুইজন মহিলা পথচারীদের মাঝে ছোলা,চিনি ও পানি দিচ্ছেন। কেউ কেউ বিশ্রাম নিচ্ছেন। মাটির কলসে পানি রাখা,পাশে রাখা আছে কাঁচা ছোলা ও চিনি ঘরে প্রবেশ করলে তারা আপ্যায়ন করছেন।

Please follow and like us:

Check Also

ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে প্রাণ গেল ১১ জনের

# আতংক কাটেনি উপকূলে # বৃষ্টি থাকবে বুধবার পর্যন্ত  # ২ কোটি ২২ লাখ গ্রাহকের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২৩*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।