সাতক্ষীরায় নৌকার ভরাডুবি

প্রবল বৃষ্টি দিনে টিপ টিপ বৃষ্টি উপেক্ষা করে তালা উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের প্রথম ধাপের স্থগিত ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে বিরতিহীনভাবে।

প্রভাব খাটানো,জালভোট প্রদান, বোমা হামলা, পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বেন করে দেয়াসহ অভিযোগের অন্ত ছিলনা নৌকার প্রার্থীদের বিরুদ্ধে। এর পরও নৌকার ভরাডুবি হয়েছে।

সোমবার সকাল ৮টা হতে বিকাল ৪টা পর্যন্ত উপজেলা বিভিন্ন ইউনিয়েন পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব সদস্যরা টহল দিতে দেখা গিয়েছে।
তালার ১১টি ইউনিয়নের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ৫ জন, ওয়ার্কার্স পার্টির একজন, বিএনপির সমর্থিত স্বতন্ত্র ২জন প্রার্থী ও জামায়েত ইসলামী সমর্থিত স্বতন্ত্র ১জন ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ২জন বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।
তালা উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের ৭৩টি ভোট কেন্দ্রের ৪০৩টি কক্ষে ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং বাকি ৩ টি ইউনিয়নের ৩১ কেন্দ্রের ১৯২ কক্ষে ইভিএম এ ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বেসরকারিভাবে বিজয়ীরা হলেন-ধানদিয়া ইউনিয়নে মো: জাহাঙ্গীর আলম (স্বতন্ত্র, বিএনপি সমর্থিত), নগরঘাটায় কামরুজ্জামান লিপু (নৌকা), ইসলামকাটিতে অধ্যাপক গোলাম ফারুক (স্বতন্ত্র, জামায়াত সমর্থিত), খলিলনগরে প্রভাষক প্রনব ঘোষ বাবলু (নৌকা), তালা সদর ইউনিয়নে সরদার জাকির হোসেন (নৌকা), তেঁতুলিয়ায় আবুল কালাম আজাদ (নৌকা), মাগুরায় গনেশ চন্দ্র দেবনাথ (নৌকা), খেসরায় কামরুল ইসলাম লাল্টু (স্বতন্ত্র, আ.লীগ), খলিষখালিতে অধ্যাপক সাবির হোসেন (ওয়ার্কার্স পার্টি), জালালপুরে এম মফিদুল হক লিটু (স্বতন্ত্র, বিএনপি সমর্থিত) ও সরুলিয়া ইউনিয়নে আব্দুল হাই মাস্টার (স্বতন্ত্র, আ’লীগ)।


এদিকে কলারোয়ায় ৬ জন স্বতন্ত্র ও ৪ জন নৌকার প্রার্থী জয়লাভ করেছেন। হেলাতলা ইউনিয়নে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন ইভিএম ও ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের ব্যালট পেপারের মাধ্যমে নির্বাচনের ভোট গণনা শেষে ৪জন নৌকা ও ৬ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়লাভ করেছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মনোরঞ্জন বিশ্বাস। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ হয়েছে।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, কলারেয়ার সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের নৌকার মনোনিত প্রার্থী বেনজির হোসেন হেলাল জয়লাভ করেছে যার নিকটতম প্রার্থী হিসেবে অংশ নিয়েছিল মোটরসাইকেল প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী শহিদুল ইসলাম। কয়লা ইউনিয়ন পরিষদের নৌকার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মাষ্টার আসাদকে হারিয়ে জয়লাভ করেছেন মোটরসাইকেল প্রতিকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী শেখ সোহেল রানা, জালালাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী নিশান হোসেন জয়লাভ করেছে। যার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিল নৌকা প্রতীকের প্রভাষক আমজাদ হোসেন। যুগিখালী ইউনিয়ন পরিষদের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রবিউল হাসান আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ওজিয়ার রহমানকে হারিয়ে জয়লাভ করেছেন। দেয়াড়া ইউনিয়ন পরিষদে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী গাজী মাহবুবুর রহমান মফে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোটরসাইকেল প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইব্রাহিম হোসেনকে হারিয়ে জয়লাভ করেছেন। হেলাতলা ইউনিয়ন পরিষদে মোটরসাইকেল প্রতিকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেন নিকটতম চশমা প্রতিকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুতালেব সরদারকে হারিয়ে জয়লাভ করেছেন। চন্দনপুর ইউনিয়ন পরিষদের আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ডালিম হোসেন নিকটতম নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মনিরুল ইসলাম মনিকে হারিয়ে জয়লাভ করেছেন। কেঁড়াগাছি ইউনিয়ন পরিষদে আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আফজাল হোসেন হাবিল নিকটতম নৌকা প্রতীকের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ভুট্টোলাল গাইনকে হারিয়ে জয়লাভ করেছেন। লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়ন পরিষদে নৌকার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এমএ কালাম নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মাস্টার নূরুল ইসলামকে হারিয়ে জয়লাভ করেছেন। জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদের অটোরিক্সা প্রতিকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বিশাখা তপন সাহা নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের শামসুদ্দিন আল মাসুদ বাবুকে হারিয়ে জয় লাভ করেছে।

Check Also

মিরসরাইয়ে একই পরিবারের ৩ জনকে গলা কেটে হত্যা

(চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা;চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে একই পরিবারের তিনজনকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার রাতে উপজেলার জোরারগঞ্জ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২১*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।