সাতক্ষীরায় কোচিং না করায় ম্যাটস শিক্ষার্থীকে বেধড়ক মারধর

  • কালিগঞ্জ (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা

কোচিং না করায় সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে সোলায়মান হোসেন নামে একজন ম্যাটস শিক্ষার্থীকে তুলে নিয়ে রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার দিবাগত রাতে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা আইএইচটি ম্যাটস এন্ড ইনস্টিটিউটে এ ঘটনা ঘটে। রাতেই আহত শিক্ষার্থীকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়।

নির্যাতনের শিকার ম্যাটস শিক্ষার্থী সোলায়মান হোসেন পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার হানিফ উদ্দিনের ছেলে। তিনি আইএইচটি’র তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

একই বর্ষের শিক্ষার্থী রিপন জানান, রেডিওলজি বিভাগের শিক্ষক সাঈদ হাসানের নির্দেশে রাত ১০টার দিকে সোলায়মানকে হোস্টেল থেকে ডেকে নিয়ে যায় রশিদ, নাহিদ ও রানা। তাদের মধ্যে নাহিদ ও রশিদ আইএইচটি’র ছাত্র এবং রানা ম্যাটসের ছাত্র। শিক্ষকের কাছে নেয়ার পর প্রথমে সোলাইমান হোসেনকে রড দিয়ে আঘাত করে মাথা ফাটিয়ে দেয়া হয়। এরপর তার সারা শরীরে নির্দয়ভাবে পেটানো হয়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় আমরা সোলায়মানকে উদ্ধার করে সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি।

সোলাইমান হোসেন বর্তমানে সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। ঘটনার পর থেকে নির্যাতনকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে বলে জানান তিনি।

এদিকে নির্যাতনের বিষয়টি জানতে পেরে শনিবার সকাল ১০টার দিকে আহত শিক্ষার্থীকে দেখতে দেবহাটার সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান সাতক্ষীরা-৩ আসনের সংসদ সদস্য সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী অধ্যাপক আ ফ ম রুহুল হক। এ সময় তিনি ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

এ বিষয়ে জানার জন্য রেডিওলজি বিভাগের শিক্ষক সাঈদ হাসানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।

Check Also

আলেম-ওলামাদের বিরুদ্ধে অবস্থান মূলত ইসলাম ও দেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া : ড. মাসুদ

ষিতে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান এবং পরে বেগম খালেদা জিয়া ছাড়া অন্য কেউ ভূমিকা রাখেননি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২১*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।