ঘুমন্ত ছোটভাইকে হত্যার পর বিষপান বড়ভাইয়ের

নীলফামারী করেসপনডেন্ট:

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে ঘুমন্ত ছোটভাই আওকত হোসেনকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ উঠেছে বড়ভাই মেহেদী হাসানের বিরুদ্ধে। হত্যার পর বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বড়ভাই নিজেও। মঙ্গলবার (৫ মার্চ) ভোরে কিশোরগঞ্জ উপজেলার কুঠিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আওকত হোসেন ওই এলাকার মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বছর খানেক ধরে মানসিক রোগে ভুগছিলেন মেহেদী। নিচ্ছিলেন চিকিৎসাও। চিকিৎসা শেষে বাড়িতে ফেরার পর মেহেদী ও তার স্ত্রী আলাদা থাকতেন। মায়ের অনুরোধে ছোটভাই ঘুমাতেন তার অসুস্থ বড়ভাইয়ের সাথে। ভোরের দিকে বড়ভাই ঘুমন্ত অবস্থায় ছোট ভাইকে গলাকেটে হত্যা করে। এসময় তার মাথায়ও কুপিয়ে জখম করে সে। পরে বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন মেহেদী নিজেও। সকালে রক্তাক্ত অবস্থায় ছোট ভাইয়ের মরদেহ দেখতে পান পরিবারের লোকজন। তাদের চিৎকারে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা।

এসময় স্থানীয় ইউপি সদস্য খগেন্দ্রনাথ রায় বিষয়টি কিশোরগঞ্জ থানা পুলিশকে জানান। পরে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে নিয়ে যান। আর গুরুতর আহত বড়ভাইকে গ্রেফতার দেখিয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়।

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ থানার ওসি পলাশ মন্ডল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে বলেও জানান তিনি।

Please follow and like us:

Check Also

কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানকে অব্যাহতি

সনদ বাণিজ্য চক্রের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে স্ত্রী গ্রেফতার হওয়ার পর এবার বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

***২০১৩-২০২৩*** © ক্রাইমবার্তা ডট কম সকল অধিকার সংরক্ষিত।